Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

image_printপ্রিন্ট করুন

30743390_592399031119692_247672815291990016_n

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এক জরুরী সাংবাদিক সম্মেলন আজ ২০ এপ্রিল শুক্রবার সন্ধ্যায় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন হিরুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী।

লিখিত বক্তব্যে সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী বলেন, বিগত ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াত-শিবিরের পেট্রোল বোমা মোকাবিলা করে এবং মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে জীবন বাজি রেখে বিপুল ভোটে প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীকে নৌকা প্রতীকে নির্বাচিত করেছি। সরকারি বরাদ্দ, উন্নয়ন কর্মকান্ড সভা-সমবেশ সব কিছুতেই উপজেলা আওয়ামী লীগকে পাশ কাটিয়ে উনার (এমপি) আত্মীয়-স্বজন নিয়ে নিজের খেয়াল খুশিমত করে যাচ্ছেন। উপজেলা আওয়ামীলীগের সাথে সাংগঠনিক ভাবে এমপি মহোদয়ের দিনদিন দূরত্ব বেড়েই চলছে। গত ১৯ নভেম্বর বিকেলে লোহাগাড়া উপজেলা চত্বরে কিছু উৎশৃঙ্খল যুবক অনৈতিক ভাবে লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ব্যানার নিয়ে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মাহবুব আলমের অপসারণের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন করেছে বলে বিভিন্ন অনলাইলন মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পেরে তিনি হতবাক ও হতবম্ব হয়েছি। এ ন্যাক্কার জনক কর্মকান্ডে উপজেলা আওয়ামী লীগ জড়িত নয় মর্মে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। ওই মানববন্ধন বা বিক্ষোভ সমাবেশে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্য নির্বাহী কমিটির ৬৭ জনের মধ্যে কেউ উপস্থিত ছিলেন না। একটি কূচক্রী মহল আওয়ামী লীগের ব্যনার ব্যবহার করে প্রশাসনের উচ্চ পর্যায়ে সুবিধা আদায়ের জন্য পরিকল্পিতভাবে করে যাচ্ছে। এসব অনৈতিক কাজে লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ তা অবশ্যয় খতিয়ে দেখে জড়িতদের বিরুদ্ধে জেলা আওয়ামী লীগের পরামর্শক্রমে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার প্রধান হিসেবে কাজ করছে। আর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের মাঠ কর্মকর্ত। সরকারী কোন কর্মকর্তা কেথায় বদলী হবে অথবা পদায়ন হবে এটা নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের কিছুই করার নেই। ইউএনও’র বদলী আদেশ বাতিল করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়। এখানে উপজেলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্ত ইউএনও’র অপসারণ দাবী করেননি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন, মো: কাশেম মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান, নাজমূল হাসান মিন্টু, মোহাম্মদ মিয়া ফারুক, অর্থ-সম্পাদক মাহমুদুল হক, দপ্তর সম্পাদক তৈয়বুল হক বেদার, প্রচার সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ,সহ-দপ্তর সম্পাদক এম.এস মামুন, নির্বাহী সদস্য নুরুল হক, নুরুল আবছার, দক্ষিন জেলা যুবলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মিয়া মুহাম্মদ শাহজাহান, উপজেলা যুবলীগ নেতা আবছার উদ্দিন, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি ফরিদ উদ্দিন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লোহাগাড়া ইউনিয়ন শাখার সভাপতি জসিম উদ্দিন, সহ-সভাপতি আব্দুল হামিদ, বড়হাতিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাজেদুর রহমান চৌধুরী দুলাল, কলাউজান ইউনিয়ন শাখার সভাপতি গাজী ইসহাক, সাধারণ সম্পাদক সামশুল ইসলাম , চরম্বা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চরম্বা ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার শফিকুর রহমান, আমিরাবাদ ইউপি সদস্য মো: ইউনুছ, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক রিদুওয়ানুল হক সুজন, যুগ্ম-আহবায়ক তৌহিদুল হাসান, যুগ্ম-আহবায়ক একেএম পারভেজ, উপজেলার আওয়ামী লীগ,আওয়ামী যুবলীগ,শ্রমিকলীগ ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাষ্টার মো: মিয়া ফারুক, শ্রমিক লীগের সভাপতি মো: ফরিদ উদ্দিন, ছাত্রলীগের আহবায়ক মো: রিদওয়ানুল হক সুজন।

ছাত্রলীগের আহবায়ক রিদওয়ানুল হক সুজন বলেন, ছাত্রলীগের ব্যানারে যারা ইউএনও’র অপসারনের দাবী করেছে তারা ছাত্রলীগের কেউ নন। যারা ছাত্রলীগের ব্যানার নিয়ে অপসারণের দাবী জানিয়েছেন তাদেরকে চিহ্নিত করেে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!