Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | মাতামুহুরীর পানি বিপৎসীমা পার, কক্সবাজার-বান্দরবানে বন্যার শঙ্কা

মাতামুহুরীর পানি বিপৎসীমা পার, কক্সবাজার-বান্দরবানে বন্যার শঙ্কা

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : টানা অতি ভারী বর্ষণে লামায় মাতামুহুরীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। কক্সবাজার ও বান্দরবানে দেখা দিয়েছে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টির শঙ্কা। পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) এ আভাস দিয়েছে।

পাউবো জানিয়েছে, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদ-নদীর পানির সমতল হ্রাস পাচ্ছে। আগামী শুক্রবার (৩০ জুলাই) পর্যন্ত ব্রহ্মপুত্র নদের পানির সমতল স্থিতিশীল থাকতে পারে। অপরদিকে যমুনা নদীর পানির সমতল হ্রাস অব্যাহত থাকতে পারে। বাংলানিউজ

গঙ্গা নদীর পানির সমতল বাড়ছে, অপরদিকে পদ্মা নদীর পানির সমতল স্থিতিশীল আছে, যা আগামী শনিবার (৩১ জুলাই) পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। মনু নদী ব্যতীত দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার সব প্রধান নদীসমূহের পানির সমতল হ্রাস পাচ্ছে, যা অব্যাহত থাকতে পারে।

পাউবোর বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া জানিয়েছেন, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর ও ভারত আবহাওয়া অধিদপ্তরের গাণিতিক মডেলের তথ্য অনুযায়ী, আগামী শনিবার নাগাদ দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য অববাহিকা এবং দক্ষিণাঞ্চল ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় উপকূলীয় এলাকাগুলোতে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস আছে। ফলে এ সময়ে দক্ষিণাঞ্চল ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় উপকূলীয় এলাকায় এবং দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য অববাহিকার নদীসমূহের পানির সমতল সময় বিশেষে দ্রুত বাড়তে পারে।

আগামী শুক্রবার নাগাদ কক্সবাজার ও বান্দরবান জেলার কতিপয় স্থানে আকস্মিক বন্যার ঝুঁকি রয়েছে। ইতোমধ্যে লামায় মাতামুহুরী নদীর পানি বিপৎসীমার ৪৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পাউবো জানিয়েছে, তাদের পর্যবেক্ষণাধীন বিভিন্ন নদ-নদীর ১০৯টি পয়েন্টের মধ্যে বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ৩৬টির পানির সমতল বেড়েছে, কমেছে ৭১টি পয়েন্টের পানির সমতল। একটি পয়েন্টের পানির সমতল বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। একটি পয়েন্টের তথ্য এখনো সংগ্রহ শুরু হয়নি।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!