ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | খালেদার সঙ্গে দেখা করতে গেলেন ৫ আইনজীবী

খালেদার সঙ্গে দেখা করতে গেলেন ৫ আইনজীবী

9ea0706856f975bf924e297734be4f18-5a7eca46e0dd6

নিউজ ডেক্স : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে প্রবেশ করেছেন পাঁচ আইনজীবী। শনিবার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে তারা কারাগারে প্রবেশ করেন।

এ পাঁচ আইনজীবী হলেন- ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী ও অ্যাডভোকেট আবদুর রেজাক খান।

এর আগে শনিবার দুপুরের পর পাঁচ আইনজীবী কারা ফটকে গিয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য কারা কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেন। প্রায় এক ঘণ্টা পর বিকেল ৪টা ২৫ মিনিটে তারা কারাগারে প্রবেশের অনুমতি পান।

আইনজীবীরা কারা ফটকে গিয়ে সামনের চেকপোস্টে থাকা পুলিশ সদস্যদের কাছে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার আবেদনপত্রটি দেন। পরে তা কারা কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয় বলে জানান সেখানে দায়িত্বরত লালবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার হেলাল উদ্দিন।

এরপার কারা কর্তৃপক্ষ তাদের সাক্ষাতের অনুমতি দিলে তারা ভেতরে প্রবেশ করেন।

প্রবেশের আগে কারাফটকের সামনে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, আইন অনুসারে ১৮ ক্যাটাগরির কারাবন্দি অটোম্যাটিক্যালি ডিভিশন পান। এর জন্য আলাদা করে আবেদনের প্রয়োজন হয় না। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় খালেদা জিয়াকে কারাগারে আনার পর এখনও ডিভিশন দেয়া হয়নি।

‘যেখানে তাকে রাখা হয়েছে এটি একটি নির্জন ও পরিত্যক্ত ভবন। এটা কোনো কারাগার নয়। এখানে ফাঁসির আসামিদের যেভাবে রাখা হয় তাকেও সেভাবেই রাখা হয়েছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।’

তিনি বলেন, রায়ের নথিপত্র পেলে আমরা দ্রুত আদালতে আপিল করবো। আমরা নেত্রীর (খালেদার জিয়া) সঙ্গে দেখা করতে এসেছি। তার সঙ্গে দেখা করে শলা-পরামর্শ করবো। তার কোনো নির্দেশনা আছে কিনা তা শুনবো।

এর আগে খালেদা জিয়ার ডিভিশন চেয়ে আইনজীবীদের আরও একটি দল কারাফটকে যান। তবে কোনো কারা কর্মকর্তার সঙ্গে তাদের দেখা হয়নি। পরে সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তাদের পরামর্শে কারা অধিদফতরে গেলেও আবেদন জমা দিতে পারেননি তারা।

গত বৃহস্পতিবার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। এরপরই তাকে রাখা হয়েছে পুরাতন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*