Home | ব্রেকিং নিউজ | লোহাগাড়ায় দাবীকৃত চাঁদা না পেয়ে অস্ত্র ঠেকিয়ে ডাম্প ট্রাক ছিনতাই

লোহাগাড়ায় দাবীকৃত চাঁদা না পেয়ে অস্ত্র ঠেকিয়ে ডাম্প ট্রাক ছিনতাই

image_printপ্রিন্ট করুন

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়ার কলাউজানে দাবীকৃত চাঁদার টাকা না পেয়ে ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে ডাম্প ট্রাক ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। গত ৩ মার্চ কলাউজানে ইউনিয়নের পশ্চিম কলাউজান বলি পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে গত ১০ মার্চ লোহাগাড়া থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। মামলার বাদী পশ্চিম কলাউজানের বাহাদুর পাড়ার আজাহার মিয়ার পুত্র জামাল উদ্দিন।

মামলায় লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের উত্তর সওদাগর পাড়ার জাফর আহম্মদের পুত্র মো. রাসেল, পশ্চিম কলাউজান বাহাদুর পাড়ার অছিউর রহমানের পুত্র আবদুল কাদের ও তার পুত্র মো. শাহাজাহানকে এজাহারনামীয় আসামী করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১ জানুয়ারি ছিনতাই হওয়া ডাম্প ট্রাকসহ আরো দুটি গাড়ি ক্রয়ের জন্য মো. হেলাল উদ্দিন প্রকাশ আবু নাছেরের সাথে চুক্তিপত্র সম্পাদন করেন। চুক্তিপত্রে উল্লেখিত শর্তাদি মতে অভিযোগকারী গাড়ির মূল মালিককে তার ছোট বোনের স্বামীর মাধ্যমে চুক্তিকৃত টাকা কিস্তিতে পরিশোধ করে আসছেন। বর্ণিত চুক্তিপত্রের শর্ত মতে অভিযোগকারী ৮ কিস্তিতে ৩ লাখ ১০ হাজার টাকা গাড়ির মূল মালিককে গাড়ি বিক্রয়ের চুক্তিপত্রের স্বাক্ষী মো. আলমগীর অর্থাৎ মূল মালিকের ছোট বোনের স্বামীর মাধ্যমে পরিশোধ করেন। অভিযোগকারী বর্তমানে গাড়ি ক্রয়ের শর্ত মোতাবেক গাড়ির মূল মালিককে প্রতি মাসে ৭০ হাজার টাকা পরিশোধ করে আসছেন। উক্ত গাড়িটি আসামী রাসেলের অধীনে থাকায় প্রতিদিনের গাড়ির ভাড়া বাবদ ২৪ হাজার টাকা ক্ষতি হচ্ছে। গাড়িগুলো ক্রয়ের পর থেকে আসামী রাসেল অভিযোগকারীর কাছ থেকে চাঁদা দাবী করে আসছে। দাবীকৃত চাঁদা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে আসামী রাসেল অভিযোগকারীকে জানে মেরে ফেলার হুমকী ধমকী দিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় গত ৩ মার্চ অভিযোগকারীর ছেলে রমজান আলী ভাড়ার উদ্দেশ্যে গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বের হয়। এ সময় আসামী রাসেল গাড়িটি থামাতে বলে। চালক অপরাগতা প্রকাশ করলে গাড়ির গ্লাস ভেঙ্গে দেয়। এরপর গাড়ি থামালে চালক রমজান আলীকে আসামী রাসেল ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে ভয়ভীতি ও মারধর করে। এক পর্যায়ে তার কাছে থাকা মোবাইল, গাড়ির চাবি ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এছাড়া আসামী রাসেল ও আবদুল কাদের তাদের একজন চালক দিয়ে গাড়িটি অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। গাড়িটি অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যেতে আসামী শাহাজাহান তদারকি করেন।

ঘটনার পর থেকে অভিযোগকারী এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়েরের চেষ্টা করেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে থানায় অভিযোগ গ্রহণ না করায় গত ৯ মার্চ চট্টগ্রাম জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ফৌজদারী অভিযোগ করেন। অভিযোগকারীর দরখাস্ত ও সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র পর্যালোচনা করে ২৪ ঘন্টার মধ্যে লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জকে দরখাস্তটি এজাহার হিসেবে গণ্য করে নিয়মিত মামলা রুজু করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন চট্টগ্রাম জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ কায়সার। এদিকে ছিনতাই হওয়া ডাম্প ট্রাক উদ্ধার ও ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

এদিকে অভিযুক্ত মো. রাসেল জানান, তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। ঘটনাটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে তদন্তের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা লোহাগাড়া থানার এসআই ভক্ত চন্দ্র দত্ত জানান, ছিনতাই হওয়া ডাম্প ট্রাক উদ্ধার ও আসামীদের গ্রেপ্তার পূর্বক আইনের আওতায় আনার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!