Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | তোমরা এগোলে, এগিয়ে যাবে দেশ : সাংসদ ওয়াসিকা আয়েশা খান

তোমরা এগোলে, এগিয়ে যাবে দেশ : সাংসদ ওয়াসিকা আয়েশা খান

70514861_2081458108830094_3157348558005338112_n

নিউজ ডেক্স : আমি পড়ালেখায় সবচেয়ে বেশি ভয় পেতাম গণিতে। অসংখ্যবার ফেলও করেছি গণিতে। কিন্তু তবুও জীবনের কোন অংশে গণিত থেকে বাঁচতে পারিনি। একে সমাধানের মধ্যে দিয়েই আজকের এই অবস্থানে। তোমরা পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়েছো তাই বলে ভেঙে পরলে হবেনা। এর থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। তোমরা এগোলে দেশ এগিয়ে যাবে।’ বলছিলেন সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ ওয়াসিকা আয়েশা খান।

শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) শিক্ষার্থীদের দক্ষ ক্যারিয়ার, শিক্ষা গবেষণা ও সামাজিক নেতৃত্ব বিকাশের সংগঠন “ডি ইঞ্জিনিয়ার্স ক্লাব” (ডিইসি) আয়োজনে জেলা পরিষদের মিলনায়তনে বাংলাদেশে দ্বিতীয় বারের মত উচ্চ মাধ্যমিকে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের নিয়ে “ঘুরে দাঁড়াও সাফল্যের পথে” দিনব্যাপী কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন ওয়াসিকা আয়েশা খান।

তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেেশ্য আরো বলেন, সবার আগে একজন ভালো মানুষ হতে হবে। সবাইকে একদিকে অগ্রসর না হয়ে একেক জনকে একেক দিকে যেতে হবে। কেউ ডাক্তার, কেউ ইঞ্জিনিয়ার, কেউ রাজনীতিবিদ, কেউবা বিজ্ঞানী হবে। জীবনের অগ্রগতির জন্যে মা-বাবার আশীর্বাদ অবশ্যই প্রয়োজন।

ওয়াসিকা আয়েশা খান এমপি আরো বলেন, প্রত্যেকে নিজের জীবন নিয়ে ব্যস্ত। তাই সবসময় উৎসাহের জন্যে অন্যকে নাও পেতে পারো। এগিয়ে যেতে নিজেকেই নিজে উৎসাহিত করবে।

দিনব্যাপী চলা অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন নগর পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার আশিকুর রহমান।

তিনি বলেন, জীবনে অনেক কঠিন মুহুর্তের সম্মুখীন হতে হবে যা থেকে পালানোর সুযোগ নেই। কিন্তু সে মুহুর্তগুলোকে উপভোগ করে কাটিয়ে উঠতে পারলে পাওয়া যাবে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য।

কর্মশালায় এইচএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের ঘুরে দাঁড়ানোর জন্যে উদ্দীপনামুলক আলোচনা করেন বাংলাদেশ স্কিল ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউটের উপদেষ্টা কে এম হাসান রিপন। তিনি ‘নেভার গিব আপ হোপ’ উক্তিটিকে সামনে রেখে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দিয়েছেন।

তিনি শিক্ষার্থীদের বলেন, মনের তালা খোলা না গেলে পৃথিবীর কোন তালা খোলা যাবে না। ব্যর্থতাকে কাটাতে ‘নীড টু ইম্প্রুভ’ লাগবে। পরীক্ষার আগে তোমরা তিন মাস নিয়মিত রুটিন মাফিক পড়ালেখা করবে। তাহলে আর অকৃতকার্য হতে হবেনা।

এছাড়াও দিনব্যাপী সেশন নেন র‍্যাংগস এফসি গ্রুপের প্রধান নির্বাহী তানভীর শাহরিয়ার রিমন, সনেট টেক্সটাইল এর পরিচালক মো. শহীদুল্লাহ, আমেরিকান কর্নার চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক রুমা দাশ, মেন্টোরস চট্টগ্রামের মাঞ্জুমা মোর্শেদ, চট্টগ্রাম মহিলা চেম্বার্স অব কমার্সের পরিচালক শাহেলা আবেদিন।

এই অনুষ্ঠান থেকে ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সোমেন কানুনগো চট্টগ্রামের জেলা-উপজেলাগুলো থেকে ২৫০ জন শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বিভিন্ন টেকনিক্যাল কোর্স করানোর ঘোষণা দেন।

অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি এবং ডিইসি’র কর্মকর্তাদের মাঝে সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে মিডিয়া পার্টনার সিভয়েস২৪ ডট কম সহ স্পন্সরকৃত সকল প্রতিষ্ঠানের প্রতি ডিইসি’র পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়।

biman-ad

উক্ত অনুষ্ঠান সমন্বয় করেন এমরান আহমেদ তামিম। এছাড়া লোপামুদ্রা নন্দীর সঞ্চালনায় ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সোমেন কানুনগোর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন গত বছর ইউটার্নে উপস্থিত অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের একাংশ। যারা নিজেদের সঠিক পথে পরিচালনা করে সাফল্য অর্জন করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!