Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | এস আলম গ্রুপে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ২

এস আলম গ্রুপে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ২

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : দেশের বিভিন্ন স্বনামধন্য গ্রুপ অব কোম্পানির চেয়ারম্যান, পরিচালক, সচিব ও অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগ্রেডিয়ারসহ বিভিন্ন পরিচয়ে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সংঘবদ্ধ চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ‍তারা হলেন- মো. হানিফ  মিয়া প্রকাশ ডিপজন (৫০) ও মো. শামসুল আলম (৪২)।

বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) ভোরে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (কাউন্টার টেররিজম) আসিফ মহিউদ্দীন। বাংলানিউজ 

মামলা সূত্রে জানা যায়, একটি সিমেন্ট কোম্পানিতে কর্মরত ডিজিএম পদমর্যাদার এক কর্মকর্তাকে ফোনে অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ও এস আলম গ্রুপের পরিচালক বলে মোবাইলে পরিচয় দেন। পরবর্তীতে উক্ত ব্যক্তিকে এস আলম গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার পদে চাকরি দেওয়ার প্রস্তাব করেন। ঢাকায় ইন্টারভিউ দিতে হবে বলে কণ্ঠস্বর পরিবর্তন করে এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান বলে ঐ কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কয়েকদিন পরে বিমান যোগে ঢাকায় যাওয়ার জন্য এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যানের মেয়ে ও জামাই দুইজন ইঞ্জিনিয়ারসহ বিমানের টিকিট করার জন্য বিমানবাহিনীর উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তার বিকাশ নম্বর দেন। এরপর এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান পরিচয়দানকারী প্রতারক ঐ ব্যক্তিকে কোম্পানির জিএম পদের জন্য নির্ধারিত গাড়ি বন্দরে আছে বলে জানান। বন্দর থেকে গাড়ি ছাড়াতে টাকা বিকাশ করতে বলে। বিমান টিকিট ও গাড়ি ছাড়ানো বাবদ মোট ৮০ হাজার ৭০০ টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারক চক্র। ভুক্তভোগী কোতোয়ালী থানায় গত ২৩ মার্চ মামলা করেন।  

আসিফ মহিউদ্দীন জানান, দেশের বিভিন্ন স্বনামধন্য গ্রুপ অব কোম্পানিতে চেয়ারম্যান, পরিচালক, সচিব ও অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ারসহ বিভিন্ন পরিচয়ে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের দুই সদস্যকে তথ্যপ্রযুক্তির সাহায্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। ‍গ্রেফতার মো. হানিফ মিয়া প্রকাশ ডিপজন বেঙ্গল গ্রুপের পরিচালক পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে ডিএমপির গুলশান থানায় গ্রেফতার হয়েছিল।  

তিনি বলেন, উচ্চপদে ভালো বেতনের চাকরির প্রলোভনে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে কৌশলে মোবাইল ব্যাংকিং ও নগদে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছে আসামিরা। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার করা হয়েছে। প্রতারক চক্রের অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!