Home | ব্রেকিং নিউজ | লোহাগাড়ায় মাদকাসক্ত ছেলে কুপিয়ে খুন করলো পিতাকে, ঘাতক আটক

লোহাগাড়ায় মাদকাসক্ত ছেলে কুপিয়ে খুন করলো পিতাকে, ঘাতক আটক

image_printপ্রিন্ট করুন
নিহত আনন্দ মোহন ধরের স্বজনদের আহাজারি। ইনসেটে আটক ঘাতক রিটন ধর

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদে মাদকাসক্ত ছেলে কুপিয়ে খুন করেছে পিতাকে। বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুর ২টার দিকে ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের উত্তর আমিরাবাদ বণিক পাড়ায় বসতঘর থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহতের নাম আনন্দ মোহন ধর (৬৫)। তিনি ওই এলাকার মৃত সচিন্দ্র ধরের পুত্র ও তিন সন্তানের জনক। একইদিন বিকেলে আমিরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান এস. এম ইউনুচ ও সদস্যদের সহায়তায় ঘাতক পুত্র রিটন ধরকে (৪৫) আটক করে। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

নিহতের ভাইপো ঘরের নাতনী বর্ষা ধর জানান, পারিবারিক কলহ নিয়ে তাদের পরিবারের প্রায় সময় কথা কাটাকাটি হতো। গত বুধবার দিনগত রাত ১১টার দিকে মাদক সেবক করে রিটন ধর বাড়িতে আসেন। পিতাকে ঘরের দরজা খুলতে বলেন। দরজা খুলতে অপরাগতা প্রকাশ করেন এবং ছেলে মিটন ধরের অনুমতি লাগবে বলে জানায় পিতা। হয়তো দরজা খুলে না দেয়ার ক্ষোভে টিনের দেওয়াল কেটে ভিতরে ঢুকে কুপিয়ে খুন করে পালিয়ে যায় রিটন ধর।

নিহতের ভাগিনা সুদিপ্ত বণিক শুভ জানান, তার মামা আনন্দ মোহন ধর বাড়িতে একা থাকেন। সকাল ১০টার দিকেও ঘুম থেকে না উঠায় খোঁজখবর নেন। বাড়ির দরজা বন্ধ ছিল এবং কোন সাড়া শব্দ পাওয়া যাচ্ছিল না। এক পর্যায়ে বাড়ির টিনের দেওয়াল কাটা দেখতে পান। ভিতরে দেখতে পান রক্তাক্ত লাশ।

নিহতের ছেলে মিটন ধর জানান, তার পরিবার ও মাকে তিনি চট্টগ্রাম শহরে থাকেন। সকালে তার পিতার রক্তাক্ত লাশ বাড়ির ভেতরে পড়ে থাকার খবর পান। এরপর তিনি পরিবারের অন্যদের সাথে নিয়ে দ্রুত বাড়িতে আসেন। তার ভাই রিটন ধর একজন মাদকাসক্ত। এ নিয়ে পরিবারের সাথে প্রায় সময় ঝগড়া-ঝাটি লেগে থাকতো।

রিটন ধরের স্ত্রী ঝিনু ধর জানান, তার স্বামী মাদকাসক্ত। তাদের ১ ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে। তিনি উপজেলায় একটি ছোট চাকুরী করেন। নেশা ও জুয়া খেলার জন্য টাকা না দিলে প্রায় সময় তাকে মারধর করত। স্বামীর অত্যচারে অতিষ্ট হয়ে তিনি সন্তানদের নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকেন। স্বামীর উপর্যুক্ত শাস্তির দাবীতে থানায় অভিযোগও করেছিলেন। এছাড়া তার মাদকাসক্ত স্বামী পরিবারের কারো কথা শুনতেন না।

আমিরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান এস. এম ইউনুচ জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশকে খবর দিই। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। বিকেলে কৌশলে ঘাতক রিটন ধরকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছি।

লোহাগাড়া থানার ডিউটি অফিসার এএসআই আবদুর রহমান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত রিটন ধর পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!