Home | ব্রেকিং নিউজ | লোহাগাড়ায় প্রধান শিক্ষকের অবহেলায় এক শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত

লোহাগাড়ায় প্রধান শিক্ষকের অবহেলায় এক শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত

image_printপ্রিন্ট করুন

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়ায় পশ্চিম কলাউজান শাহ মজিদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের অবহেলায় এক শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চিতা দেখা দিয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী নাম উম্মে ফাতেমা সাদিয়া। সে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ সুখছড়ি তালুকদার পাড়ার মমতাজুল ইসলামের কন্যা ও পশ্চিম কলাউজান শাহ মজিদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

শিক্ষার্থী উম্মে ফাতেমা সাদিয়া জানায়, ২০২০ সালে দেশে করোনা পরিস্থিতিতে ৮ম শ্রেণীতে অধ্যয়রত অবস্থায় বিদ্যালয়ে নিয়মিত অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিয়ে আসছে। উক্ত অ্যাসাইনমেন্টের ভিত্তিতে ৮ম শ্রেণী থেকে অটোপাসের মাধ্যমে ৯ম শ্রেণীতে ভর্তি হন। বর্তমানে বিদ্যালয়ে শ্রেণী রোল নং- ২৭। চলতি সনের ৫ সেপ্টেম্বর রশিদের মাধ্যমে বিদ্যালয়ের বেতন পরিশোধ করি। কিন্তু নিয়মানুযায়ী এসএসসি পরীক্ষার জন্য রেজিষ্ট্রেশন ফি জমা দিতে চাইলে প্রধান শিক্ষক আপত্তি জানান। কারণ জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক জানায় ৮ম শ্রেণীতে তার রেজিষ্ট্রেশন হয়নি। ভুলক্রমে তার ফাইলটি পাওয়া যাচ্ছে না। তাই এসএসসি পরীক্ষার জন্য রেজিষ্ট্রেশন করা যাবে না। তাকে পুণরায় ৮ম শ্রেণীতে ভর্তি হবার পরামর্শ দেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

শিক্ষার্থীর পিতা মমতাজুল ইসলাম জানান, এসএসসি পরীক্ষার জন্য তার মেয়ে রেজিষ্ট্রেশন করতে না পারার কারণ জানতে বিদ্যালয়ে যান। এ সময় প্রধান শিক্ষক তার সাথে দুর্বব্যবহার করেছেন। প্রধান শিক্ষকের অবহেলার কারণে তার মেয়ে শিক্ষা জীবনের ৪ বছর পিছিয়ে পড়েছে। বর্তমানে তার মেয়ে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবী করেন তিনি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইসমাইল হোসেন জানান, অষ্টম শ্রেণীতে রেজিষ্ট্রেশন চলাকালীন ওই শিক্ষার্থীর কাছ থেকে পিইসি’র সনদ ও জন্মনিবন্ধনের কপি চেয়েছিলেন। ঠিক সময়ে কাগজগুলো দিতে না পারায় তার রেজিষ্ট্রেশন হয়নি। রেজিষ্ট্রেশন না হলে ৯ম শ্রেণীতে ক্লাস ও বেতন নেয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান, করোনার কারণে সব ক্লাসে অটোপাশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এরপর শিক্ষার্থীর রেজিষ্ট্রার বহিতে যেই নামগুলো ছিল সবগুলো পরবর্তী ক্লাসে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। ভুলবশতঃ ওই শিক্ষার্থীর নামও পরবর্তী ক্লাসের রেজিষ্ট্রার বহিতে লিপিবদ্ধ হয়েছে।

লোহাগাড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, প্রধান শিক্ষকের অবহেলার কারণে ৮ম শ্রেণীতে রেজিষ্ট্রেশন না হাওয়ার অভিযোগ এনে এক শিক্ষার্থী লিখিত অভিযোগ করেছে। অভিযোগটি সরেজমিনে গিয়ে তদন্ত করা হবে। যদি প্রধান শিক্ষকের অবহেলার কারণে এমন ঘটনা ঘটে তাহলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!