Home | শীর্ষ সংবাদ | মৃত্যূ যেনো ভোরের একফোঁটা শিশির

মৃত্যূ যেনো ভোরের একফোঁটা শিশির

image_printপ্রিন্ট করুন

________ ফিরোজা সামাদ________

নীল বিরহী শীতে স্বাপ্নিক চারণভূমিতে
মানুষ ও সময় বৃত্ত ভাঙার সাইরেন বাজায়,
তোমার সোহাগে টকবিহীন জলপাই
পাথর হৃদয়ে শীত কাতর মনে যেনো হীরক খন্ড,
দূর কুহেলিকা মায়াময় প্রলেপে শূন্যতার কাহনে প্রত্যাশার ফলকে ভালোবাসায় বারোয়ারী মাছের মতো ভাইরাস জীবনের চিত্রপটে থাকে নীরব অাক্ষেপের পতন !!

ঘাসফড়িং ওরে অন্ধ মাঠে অন্ধ জোছনার পাষাণ ফলকে, বেদনার রঙে জলছবির মতো,
হেমন্তের জলদ ঘ্রাণে মিতা তুমি শুভমিতা
তুমি এলে বড়ো অসময়ে মাঘের প্রকৃতিতে
ভুলের মাশুল হয়ে, বসন্তের অাবহ সঙ্গীতে
ভাটার টানে প্রত্যাশারাও উড়ে যায় পাখি হয়ে !!

বেনিয়া নগরের প্রেমিক তুমি! সংক্ষুব্ধ মনের ঝড় ভালোবাসা নেই বলে বজ্রকন্ঠের অমর সংগীতে ভস্ম হচ্ছে নাগরিক মন, পতন-কথন, অাগুন-রাশি, দৃশ্য অদৃশ্য, কাব্য বিবাগী বৃষ্টি, জানা-বোঝা, মন ও অামি, ঘোর-কাল, জলের প্রপাত,তুমি আমি, শীত বৃষ্টি, আমি ও জীবনানন্দ শীত যাতনায়, ত্রিতালে ত্রি মোহনায় চাতক হতে পারিনি হতে পারিনি নটবর লাল মন বিছানো পথ !!

আকাশের বেদনায় পথের মানুষ
বৃক্ষের অসহায়ত্বে উড়ন্ত পাখির মন
মনের অাকাশে বাঁশির বিরহ সুরে জেগে উঠি বারবার!
তোমাকে অভিশাপ! হৃদয়ে নেই অনুভূতিতেও নেই
হৃদয়ের তালুতে স্বপ্ন গোলক অার –
চোখ ডুবেছে চোখের অাঁধারে,
বীজমন্ত্র জীবন উড়ে যাওয়া সরল বোধ
বিদায়ী বছরের অার্তনাদে শূন্যতা পূর্ণতা !!

অাবেগ মথিত সময়ে ভালোবাসার ইতিহাস
বৃক্ষের অাকৃতিতে চিহ্ন স্মারক স্বপ্ন বাতাস
অমর বাঁধন অার ইচ্ছে কাব্য
শতছিন্ন হৃদয়ের অার্তনাদে গোলাপ ফোটে
হীরক জমিনে
অাগুন অাগুন খেলায় ছায়ামূর্তি তুমি
অাত্মপ্রলয়ের গানে শোনাও স্বপ্নময় হিজল অাখ্যান
কষ্ট সহিষ্ণুতার প্রত্যাশী গোলাপে ছায়ামূর্তি তুমি
নিরামিষভোজী আমিত্বে নীতির পতাকা উড়ছে মনের খোলা মাঠে !!

অাজল ভরা জোছনা কাব্যে খসে পড়ে আকাশ,
ঘৃণিত নষ্ট পুরুষ শূন্যতার সালাদ,
নিঃশব্দ প্রণয় ডঙ্কা নতজানু সব উজ্জ্বলতার বাহক,
মন মানে চিনি-জলে সরবতে জমাট বেদনা তরল শূন্যতা,
জল সাঁতারে নারী হেঁটে যায় সূর্যের সীমানায়,
অাগন্তুক আসছে নগরে উষ্ণতার জন্য অপেক্ষা
করাত স্মৃতি,মৃতের মিছিল,
তোমার কাছে সবই ম্লান রাতের জন্য অপেক্ষা,
বিহ্বল হৃদয় ফেরারি মন নিম স্বাদ সময়,
ঢেউ জাগে অাছড়ে পড়ে ঢেউ জাগে মিলিয়ে যায়,
জীবনের স্রোত সময়ের কাছে বন্দী সময়,
সামনে কেবলই উজ্জ্বলতার কেন্দ্রবিন্দু,
অন্তরে অাহ্বান হৃদয় নাচে হেমন্তে !!

নিঃশব্দ জলের প্রপাত ও পাতার কান্না,
মৃতের সংসার লোভের পিঁপড়ার অাজব প্রত্যাশা,
ইশারা ভাষা শূন্যতার পথে অর্থহীন হাহাকার,
তুমিই অজগ্র উজ্জ্বল চাঁদ অতিক্রমণের কালে –
ফুল ও নারী পোড়ে প্রণয়ের পাঠশালা,
তোমার হৃদয় ছাপিয়ে পাথরের অার্তনাদ
হৃতয়ভর্তি খামে জমানো রেখাচিত্র অার
মনের খবর!

জন্মেছি বলেই অাছে প্রেমজ আখ্যান,
পুড়ে যায় বিরহ বৃক্ষ ঘূর্ণিঝড় বুলবুল,
তোমার দুধেল মনে প্রেম কি বন্যার জল?
ঘোলা জলে শিকারের পর বরফ স্নান তোমার!

অতঃপর ;
জলবতী তুমি, রঙ বাহারি তুমি,
তোমার পাতাবাহার মনে,
মৃত্যু যেনো ভোরের একফোঁটা শিশির !!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!