ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সাতকানিয়ায় আ’লীগ নেতার হাতে মহিলা ইউপি সদস্য লাঞ্ছিত

সাতকানিয়ায় আ’লীগ নেতার হাতে মহিলা ইউপি সদস্য লাঞ্ছিত

777

নিউজ ডেক্স : সাতকানিয়ায় আওয়ামী লীগ নেতার হাতে এক মহিলা ইউপি সদস্য শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাঁর নাম সম্পা দেবী সোমা (২৫)। তিনি ছদাহা ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা আসন-৩ এর নির্বাচিত সদস্য। গত শনিবার দুপুর আড়াইটার সময় ছদাহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোরশেদুল আলম দুলু ইউপি কার্যালয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে মহিলা সদস্যকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগ করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল সকাল থেকে ছদাহা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোসাদ হোসেন চৌধুরী ও সকল সদস্য ইউপি কার্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন এবং বিচার কার্য সম্পাদন করছিলেন। দুপুরের দিকে চট্টগ্রাম জেলা পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এডভোকেট একেএম সিরাজুল ইসলাম গণসংযোগ করার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে ছদাহা এলাকায় যান। তিনি ইউপি কার্যালয়ে গিয়ে চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সাথে আলাপ করেন। এসময় ছদাহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোরশেদুল আলম দুলু আজিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি হতে না পারাসহ বিভিন্ন বিষয়ে চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া-লোহাগাড়া) আসনের সংসদ সদস্য ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর বিরুদ্ধে কথা বলছিলেন। তখন ছদাহা ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্য সম্পা দেবী সোমা ও হামিদা বেগম মিলে আওয়ামী লীগ নেতা মোরশেদুল আলম দুলুর কথার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেন। এতে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোরশেদুল আলম দুলু ফোন করে দলীয় নেতাকর্মীদেরকে ইউপি কার্যালয়ের সামনে জড়ো করেন। এরপর তাঁর কথার বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারী দুই মহিলা ইউপি সদস্যের নাম ধরে গালি গালাজ শুরু করেন। তখন সম্পা দেবী সোমা পুনরায় প্রতিবাদ করলে দুলু উত্তেজিত হয়ে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।

ইউপি সদস্য ও ছদাহা নাথ পাড়ার বিজয় নাথের স্ত্রী সম্পা দেবী সোমা জানান, দুপুরের দিকে চট্টগ্রাম জেলার পাবলিক প্রসিকিউটর ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এডভোকেট একেএম সিরাজুল ইসলাম বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ শেষে ইউপি কার্যালয়ে যান। তিনিও শান্তিপূর্ণ ভাবে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করছিলেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ নেতা মোরশেদুল আলম দুলু আজিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি হতে না পারার জন্য ড. আবু রেজা নদভী এমপিকে দায়ী করে বিভিন্ন কথা বলছিল। তখন আমি ও হামিদা বেগম তাঁর কথার প্রতিবাদ করায় প্িত হয়ে দুলু দলের নেতাকর্মীদের একত্রিত করে তাদের সামনে আমরা দুই জনকে গালি গালাজ শুরু করে। এর প্রতিবাদ করলে দুলু আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।

ঘটনার বিষয়ে ছদাহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মোরশেদুল আলম দুলুর ব্যক্তিগত মোবাইলে ফোন করলে অন্য একজন রিসিভ করেন।

চেয়ারম্যান মো. মোসাদ হোসেন চৌধুরী জানান, মোরশেদুল আলম দুলু চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া-লোহাগাড়া) আসনের সংসদ সদস্য ড. নদভীর বিরুদ্ধে কিছু কথা বলছিল। তখন ইউপি সদস্য সম্পা দেবী সোমা ও হামিদা বেগম তাঁর বক্তব্যের প্রতিবাদ করে। ফলে তাদের মধ্যে প্রথমে কথা কাটাকাটি হয়। পরে তা ধাক্কা-ধাক্কি পর্যন্ত গড়ায়। সাতকানিয়া থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম জানান, ছদাহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মোরশেদুল আলম দুলু এবং মহিলা ইউপি সদস্য সম্পা দেবী সোমার মধ্যে কথা কাটাকাটি এবং ধাক্কা ধাক্কির খবর শুনেছি। অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

-আজাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*