ব্রেকিং নিউজ
Home | শিক্ষাঙ্গন | মাদরাসা শিক্ষকদের দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী

মাদরাসা শিক্ষকদের দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী

edu-20180114183018

নিউজ ডেক্স : স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষকদের দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। রোববার আন্দোলনরত শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে এমন আশ্বাস দিয়ে তাদের ঘরে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী। রাজধানীর পরিবহনপুলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলীও উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয়করণের দবিতে ছয়দিন ধরে আমরণ অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষকরা। এতে প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এ কারণে বোরবার শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, চলমান সংকট নিরসনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সক্রিয় প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। শিগগিরই এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে অবহিত করা হবে।

সভাশেষে শিক্ষামন্ত্রী বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক সমিতির সভাপতি কাজী রুহুল আমিন চৌধুরী ও মহাসচিব কাজী মোখলেছুর রহমানকে সভার সিদ্ধান্ত অবহিত করেন। সেইসঙ্গে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আমরণ অনশনকারী শিক্ষকদের নিয়ে ঘরে ফিরে যাবার অনুরোধ জানান।

এ তীব্র শীতের মধ্যে আর কষ্ট না করার আহ্বান জানিয়ে নাহিদ বলেন, আপনাদের দাবি ও সমস্যা যথাযথভাবে আমরা প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরব। আপনারা ঘরে ফিরে যান।

প্রতিনিধিদ্বয় মন্ত্রীর প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে বলেন, সারাদেশের শিক্ষক প্রতিনিধিরা যেহেতু অনশনে আছে সেখান থেকে ২০ জনের একটি প্রতিনিধিদলের সামনে এ প্রস্তাব তুলে ধরলে ভালো হয়।

সে অনুযায়ী রোববার বিকেল ৩টায় আবার ২০ জনকে তারা শিক্ষামন্ত্রীর অফিসকক্ষে নিয়ে আসেন। শিক্ষামন্ত্রী প্রতিনিধিদের সামনে আন্দোলনরত সবাইকে নিয়ে ঘরে ফিরে যাবার জন্য আবারও অনুরোধ জানান। তাদের দাবি শিগগিরই প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর কাছে যথাযথভাবে তুলে ধরার আশ্বাস দেন তিনি।

এ সময় কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা সচিব মো. আলমগীর, অতিরিক্ত সচিব এ কে এম জাকির হোসেন ভূঁইয়া, অশোক কুমার বিশ্বাস ও রওনক মাহমুদ, মাদরাসা শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. বিল্লাল হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*