Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | ভালোবেসে বিয়ে, দেড় মাসের মাথায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা : ঘাতক স্বামী আটক

ভালোবেসে বিয়ে, দেড় মাসের মাথায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা : ঘাতক স্বামী আটক

image_printপ্রিন্ট করুন

K H Manik Pic 04-11-2017 (3)

কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া : মেহেদীর রং মুছতে না মুছতেই স্ত্রী রাবেয়া বসরীকে (১৮) কুপিয়ে হত্যা করল স্বামী দিল মোহাম্মদ (৩০)। গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়ার হলদিয়াপালং চৌধুরী পাড়ায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। স্থানীয় জনগণের সহায়তায় পুলিশ ঘাতক স্বামীকে আটক করেছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত রাবেয়া বসরী উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের ফরেস্ট অফিসপাড়া এলাকার আলী আকবরের মেয়ে। ঘাতক স্বামী দিল মোহাম্মদ একই ইউনিয়নের ছোট ইনানী এলাকার মুহাম্মদ আবদুল্লাহর ছেলে ও পেশায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। গত বুধবার নতুন স্বামী-স্ত্রী দাওয়াতে ফুফু মনোয়ারার (রাবেয়ার) বাসায় বেড়াতে আসে। চৌধুরীপাড়া এলাকার বাসিন্দা আবুল হোছাইন আবু জানান, মাগরিবের নামাজের পর পরই চৌধুরীপাড়ার নুরুল হকের (রাবেয়ার ফুফু মনোয়ারাদের) বাড়ি থেকে শোর চিৎকার ভেসে আসছিল। এটি শুনে প্রতিবেশীরা দৌঁড়ে তাদের বাড়িতে যান। সেখানে একটি বন্ধ কক্ষ থেকে নারী কণ্ঠের চিৎকার পাওয়া গেলেও দরজা ভেতর থেকে বন্ধ থাকায় কেউ প্রবেশ করতে পারছিল না। পরে দরজা ভেঙে ঢুকে দেখা যায় মেঝেতে রাবেয়ার রক্তাক্ত দেহ পড়ে আছে। তার পায়ের পাশে পড়ে রয়েছে ধারালো দা। দরজা খুলে সবাই হতবম্ভ হয়ে যায়। এসময় দিল মোহাম্মদ পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে উপস্থিত লোকজন তাকে ধরে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে। পরে খবর দেয়া হয় পুলিশকে। উখিয়া থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়ের তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশে ঘটনাস্থলে যায়। লাশটি উদ্ধার করে সুরত হাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। পুলিশ পরিদর্শক মাইন উদ্দিন জানান, রাবেয়ার বাম হাতের কব্জি দায়ের কোপে প্রায় বিচ্ছিন্ন। কাটা গেছে ডান হাতের একাধিক আঙ্গুলও। গালের ডান পাশে একাধিক কোপ, ডান কাধে গভীর কোপের আঘাতসহ শরীরের একাধিক স্থানে জখমের বিভৎস চিহ্ন রয়েছে। তিনি জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘাতক দিল মোহাম্মদ জানিয়েছে, তারা ভালোবেসে বিয়ে করে। কিন্তু তার মনে হচ্ছিল বিয়ের পর রাবেয়া তাকে অবহেলা করছে। ফুফুর বাসায় বেড়াতে এসে এ অবহেলা আরও বেশি ধরা পড়ে তার চোখে। এটি মেনে নিতে না পেরে তাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে দাবি করেছে সে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!