Home | অন্যান্য সংবাদ | বিয়ের ছবি প্রকাশ করলেন শবনম ফারিয়া

বিয়ের ছবি প্রকাশ করলেন শবনম ফারিয়া

13283248393097_2369201013154183_4792251743540871168_n (1)

বিনোদন ডেক্স : আগামী ফেব্রুয়ারির শুরুতেই বিয়ে করতে যাচ্ছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। ক’দিন আগে গণমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশ হয়। কিন্তু সেসব ছাপিয়ে এবার বিয়ের খবর পাওয়া গেল। পাত্রের নাম হারুন অর রশিদ অপু। শবনম ফারিয়া বিষয়টি নিজেই নিশ্চিত করেছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন মাধ্যমে শবনম ফারিয়ার বিয়ের খবর পাওয়া যাচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, আমি নিজেই জানিয়েছি বিয়ের খবর। এখানে গোপনীয়তা কিংবা খবর গোপন ভাবে পাওয়ার সুযোগ নেই। আমাদের বিয়ের অনুষ্ঠান ১ ফেব্রুয়ারির একদিন আগে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেটা আগেই হয়ে গেল।

জানা গেছে শবনম ফারিয়ার বিয়ের অনুষ্ঠান হবে ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখে। ২৬ জানুয়ারি হবে মেহেদি উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বিয়ের অনুষ্ঠান কোথায় হচ্ছে এই প্রশ্নের জবাবে ফারিয়া বলেন, ‘আপাতত সেটা বলতে চাচ্ছি না ভাইয়া। অন্তত সংবাদে ছাপানোর জন্য আপাতত লোকেশন বলছি না। বার সেই যথা নিয়মেই বাকি প্রোগ্রামগুলো হবে। আর আমাদের জন্য দোয়া করবেন, সবাইকে দোয়া করতে বলবেন।’

শবনম ফারিয়া বলেন, ‘আরও দু-বছর আগে অপুর সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওই সময় অপুর বাবা মারা যাওয়ার কারণে পিছিয়ে যায় বিয়ে। এক বছরের মাথায় আবার আমার বাবা মারা যান। এ কারণে দুই বছর পিছিয়ে যায় আমাদের বিয়ে। সবকিছু গুছিয়ে উঠে এখন বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার আয়োজন করা হয়েছে।’

মঙ্গলবার রাতে নিজের ফেসবুকে ফারিয়া তার স্বামী হারুন অর রশিদ অপুর সঙ্গে দুটি ছবি প্রকাশ করেছেন।

শবনম ফারিয়ার স্বামী হারুন অর রশিদ অপু পেশায় একটি বেসরকারি বিপণন সংস্থার জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক। এ বিয়েতে অপু এবং ফারিয়ার দুই পরিবারের পূর্ণ সমর্থন রয়েছেন। তবে তারা পরস্পরকে ভীষণ ভাবে পছন্দ করেন। তাদের এই ভালোবাসাকে প্রাধান্য দিয়েছে তাদের দুই পরিবার

২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে হারুন অর রশিদ অপুর অঙ্গে শবনম ফারিয়ার বন্ধুত্ব হয়। এরপর ফেসবুকে কথা বলতে বলতে তাদের দুজনের মধ্যে বন্ধুত্বের বন্ধন মজবুত হয়। তিন বছর ধরে তাদের দুজনের বন্ধুত্ব। একটা সময় তারা দুজনেই পরস্পরের প্রতি ভালোবাসা অনুভব করেন। অপু-ফারিয়ার সম্পর্ক তাদের দুই পরিবার জানলে এতে পূর্ণ সমর্থন দেন। ফারিয়ার কাছ থেকে জানা যায়, এ বছর ফেব্রুয়ারিতে তাদের একেবারে ঘরোয়াভাবে আঙটি বদল হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*