Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সিনহা হত্যার বর্ণনা দিলেন প্রত্যক্ষদর্শীরা

সিনহা হত্যার বর্ণনা দিলেন প্রত্যক্ষদর্শীরা

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান (অব.) হত্যার মেরিন ড্রাইভের টেকনাফ বাহারছড়ার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন মামলার নতুন তদন্ত কর্মকর্তাসহ (আইও) র‌্যাবের একটি দল।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে বাহারছড়ার শামলাপুর এপিবিএন পুলিশের চেকপোস্ট পরিদর্শন করেন তারা। এসময় তাদের দেখে প্রত্যক্ষদর্শীরা এগিয়ে এলে তদন্ত দল তাদের নির্ভয়ে তথ্য দেওয়ার আহ্বান জানায়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫ কক্সবাজার ব্যাটালিয়নের সহকারী পরিচালক এএসপি খাইরুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যাবের দলটি ঘটনাস্থলে ঘণ্টা দেড়েক অবস্থান করে।

এ সময় তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, কোনো অপরাধী যেন ছাড় না পায় সেভাবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আমরা কোনো পক্ষের না। প্রকৃত ঘটনা তুলে আনার জন্য কাজ করছি।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে গাড়িবহরে র‌্যাবের একটি দল অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যার ঘটনাস্থল টেকনাফের বাহারছড়া এলাকা পরিদর্শনে আসে। তদন্ত দল ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলেন। এতে এক প্রত্যক্ষদর্শী, এপিবিএন চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে সিনহার মরদেহ মাটিতে কীভাবে পড়েছিল সেটির বর্ণনা দেন।

বক্তব্যের সাথে মিলিয়ে ইট দিয়ে শরীরের অবয়ব তৈরি করে ঘটনার সময় সিনহা রাশেদের অবস্থান বোঝার চেষ্টা করেন র‌্যাবের নতুন তদন্ত কর্মকর্তা। এসময় একটি প্রাইভেটকার দাঁড় করিয়ে সিনহা রাশেদের প্রতীকী অবস্থান তৈরি করেন। ঘটনার সময় এপিবিএন’র চেকপোস্টে ব্যারিকেডগুলো অবস্থান বোঝার চেষ্টা করেন।

পরিদর্শনকালে তদন্তকারী দলটি ঘটনাস্থল ঘুরে দেখে এবং নানা তথ্য সংগ্রহ করে। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে তদন্তকারী দলটি ঘটনাস্থল থেকে ফিরে যায়।

স্থানীয় এক ইউপি সদস্য বলেন, দুপুরে র‌্যাবের একটি দল ঘটনাস্থলসহ আশপাশ ঘুরে দেখে। কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শীর সঙ্গেও কথা বলেন। এসময় তদন্ত দলের সামনে কীভাবে ঘটনা হয়েছিল সেটি বর্ণনা তুলে ধরেন এক প্রত্যক্ষদর্শী।

টেকনাফ বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মৌলভী আজিজ উদ্দীন বলেন, মেরিন ড্রাইভে বাহারছড়ায় এপিবিএন’র চেকপোস্টে র‌্যাবের একটি দল পরিদর্শন করেন। এসময় স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন তারা।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জুলাই রাত ১০টার দিকে টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর এপিবিএন চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন (অব.) সেনা কর্মকর্তা সিনহা মো. রাশেদ খান।

এ ঘটনায় নিহতের বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে গত ৫ আগস্ট টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরির্দশক লিয়াকত আলীসহ ৯ পুলিশ সদস্যকে আসামি করে আদালতে মামলা দায়ের করেন। আর মামলাটির তদন্তভার দেয়া হয়েছে র‌্যাবকে। ইতোমধ্যে মামলার নতুন আইও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। জাগো নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!