Home | ব্রেকিং নিউজ | লোহাগাড়ায় বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার

লোহাগাড়ায় বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার

image_printপ্রিন্ট করুন

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়ার পদুয়ায় মেঘনাথ দে (৮৫) নামে এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের জঙ্গল পদুয়া আনন্দ পাড়ায় হাঙ্গর খালের পাড় থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত বৃদ্ধ মেঘনাথ দে একই ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের উত্তর পদুয়া বাড়ই পাড়ার মৃত অনঙ্গ মোহন দে’র পুত্র ও ৪ সন্তানের জনক।

স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যায় হাঙ্গর খালের পাড়ে বাঁশ ঝাঁড়ে এক বৃদ্ধের লাশ দেখতে পান। পরে থানা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। লাশের শরীরে পচন ধরেছে। ধারণা করা হয়েছে কয়েকদিন আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

নিহতের ছেলে তপন দাশ জানান, তিনি বান্দরবানে বসবাস করেন। অনেকদিন তার বাসায় ছিলেন পিতা মেঘনাথ দে। কয়েকদিন আগে পদুয়ায় নিজ বাড়িতে আসেন তার পিতা। গত রোববার থেকে তার পিতাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। সম্ভাব্য জায়গায় অনেক খোঁজাখুজি করেছেন। কিন্তু পাওয়া যায়নি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হাঙ্গর খালের পাড়ে বাঁশ ঝাঁড়ে পিতার লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাদেরকে খবর দেন। তবে, ধারণা করছেন তার পিতার রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুষ্ঠু তদন্ত দাবী করছেন। এছাড়া তার পিতা একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন বলেও দাবী করেন তিনি।

লোহাগাড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটী কমান্ডার আবদুল হামিদ জানান, মেঘনাথ দে তালিকাভূক্ত না হলেও সে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছেন। সর্বশেষ ২০১৭ সালে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটি মেঘনাথ দে কে ‘ক’ তালিকাভূক্ত করে কাগজপত্র মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তিনি সরকারি তালিকাভূক্ত হননি।

এদিকে, খবর পেয়ে সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাকারিয়া রহমান জিকু ও লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকের হোসাইন মাহমুদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ওসি জানান, লাশের গায়ে আঘাতে কোন চিহ্ন নেই। তবে মুখে পচন ধরেছে। লাশ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতাল মর্গে প্রেরণের প্রস্তুতি চলছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাবার পর তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!