Home | ব্রেকিং নিউজ | লোহাগাড়ায় বসতবাড়ি দখলের অপচেষ্টা ও মা’কে ঘর থেকে বের করে দেয়া সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

লোহাগাড়ায় বসতবাড়ি দখলের অপচেষ্টা ও মা’কে ঘর থেকে বের করে দেয়া সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

image_printপ্রিন্ট করুন

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া উপজেলার পূর্ব কলাউজান ৭নং ওয়ার্ডের বণিক পাড়ায় বসতবাড়ি অবৈধভাবে দখলের অপচেষ্টা, চাঁদা দাবী, মা’কে ঘর থেকে বের করে দেয়াসহ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদের প্রতিবাদ এবং মিথ্যা মামলার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভূক্তভোগী সুকুমার ধর।

শুক্রবার (১৪ আগস্ট) সকাল ১১টায় উপজেলা সদরের বটতলী মোটর ষ্টেশনস্থ এক রেস্টুরেন্টের হল রুমে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুকুমার ধরের পক্ষ তাঁর পুত্র রাসেল ধর।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, পূর্ব কলাউজান মৌজায় ২০১৫ সনের ৯ জুন ১৯২০ নং দানপত্র দলিল মূলে তপন ধর ৮ শতক জায়গা আপন ভাই সুকুমার ধরকে দখল হস্তান্তর করেন তপন ধর। সে মতে সুকুমার ধরের নামে নামজারী খতিয়ানও সৃজন হয়। উক্ত জায়গায় তিনি পাকা বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন। বিনিময়ে জায়গা দাতা তপন ধর লিখিত স্ট্যাম্পের মাধ্যমে ২৫ লাখ টাকার রশিদ বুঝিয়ে নেন। পরবর্তীতে তপর ধর লোভের বশিভূত হয়ে বিক্রিত জায়গা দানপত্র করে দেয়ার সুযোগে চক্রান্তমূলক উক্ত দানপত্রের বিরুদ্ধে গত ১০ আগস্ট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এছাড়া তপন ধর, রুপনা ধর গং, রেখা বড়ুয়া ও বিলাশ ধরসহ সংঘবদ্ধ দুঃস্কৃতিকারী চাঁদাদাবী, জীবন নাশের হুমকি, মিথ্যা মামলাসহ প্রকাশ্যে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে আসছে। তপন ধর গং তাদেরকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদ করার জন্য দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রকাশ্যে হুমকি দিচ্ছে। এ ব্যাপারে গত ১২ আগষ্ট লোহাগাড়া থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, গত ১৩ আগস্ট তপন ধর গংদের দায়েরকৃত মিথ্যা মামলায় আমরা আদালতে আত্মসমর্পণ করি। আদালত যাচাই-বাচাইপূর্বক আমাদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। এছাড়া গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সুকুমার ধরের মা’কে ঘর থেকে বের করে দেয়াসহ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করেন। মূলত: তপন ধর গং মা’কে জিম্মি করে রেখেছেন। এসব মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!