Home | ব্রেকিং নিউজ | লোহাগাড়ার তরুণ বিজ্ঞানী নোবেলের উদ্ভাবিত রোবট স্থান পেল জাতীয় জাদুঘরের উদ্ভাবনী প্রদর্শনী গ্যালারিতে

লোহাগাড়ার তরুণ বিজ্ঞানী নোবেলের উদ্ভাবিত রোবট স্থান পেল জাতীয় জাদুঘরের উদ্ভাবনী প্রদর্শনী গ্যালারিতে

image_printপ্রিন্ট করুন

এলনিউজ২৪ডটকম : চট্টগ্রামের তরুণ বিজ্ঞানী জাহেদ হোসাইন নোবেলের উদ্ভাবিত রোবট জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের উদ্ভাবনী প্রদর্শনী গ্যালারিতে স্থান পেয়েছে। যেটি অগ্নিনির্বাপণ ও করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় মাঠ পর্যায়ে কাজ করতে সক্ষম।

আজ মঙ্গলবার (২৫ মে) দুপুর ২টায় জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কর্তৃক আয়োজিত ‘৪র্থ শিল্প বিপ্লবের অগ্রযাত্রায় জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর’ শীর্ষক আলোচনা এবং “রোবট হস্তান্তর অনুষ্টান ও বিজ্ঞান সভায়” আনুষ্টানিকভাবে জাদুঘরের মহাপরিচালক মুনির চৌধুরীর নিকট উদ্ভাবিত রোবটটি হস্তান্তর করা হয়। এসময় জাতীয় জাদুঘর কর্তৃপক্ষ রোবটটি উদ্ভাবন ও তৈরী খরচ বাবদ সম্মানীর একটি চেক তুলে দেন।

চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সাবেক মেধাবী ছাত্র তরুণ বিজ্ঞানী জাহেদ হোসাইন নোবেল জানান, ২০১৯ সালে সংঘটিত রাজধানীর চকবাজার চুড়িহাট্টা ট্রাজেডি, বানানী এফ. আর. টাওয়ার, কেরানীগঞ্জের প্লাস্টিক কারখানাসহ বিভিন্ন স্থানে অগ্নিকান্ডের কারণগুলোকে চিহ্নিত করে সহজ ও দ্রুত উপায়ে অগ্নিনির্বাপণ এবং ফায়ারম্যানদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে রিমোট কন্ট্রোল নিয়ন্ত্রিত এই রোবটটি তৈরি করা হয়।

সাম্প্রতিক সময়ে করোনা পরিস্থিতিতেও জনসাধারণের সুরক্ষা নিশ্চিত ও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মাঠ পর্যায়ে থেকে কাজ করতে সক্ষম এই রোবট। এছাড়াও রোবটটি সরকারী-বেসরকারী অফিস, আদালত, ব্যাংক, হাসপাতাল অথবা করোনায় ঝুকিপূর্ণ এলাকায় গিয়ে উরংরহভবপঃরড়হ ঝঢ়ৎধু করতে পারবে। আক্রান্ত ব্যাক্তির কাছে প্রয়োজনীয় ঔষধ ও খাবার সরবরাহ ছাড়াও আশ-পাশে পড়ে থাকা ব্যবহৃত মাস্ক সংগ্রহ করে নির্দিষ্ট স্থানে গিয়ে ফেলে দিতেও সক্ষম এ রোবটি।

জানা যায়, চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার বড়হাতিয়া ইউনিয়ের কৃতি সন্তান তরুণ বিজ্ঞানী জাহেদ হোসাইন নোবেলের উদ্ভাবিত এই রোবটটি বিগত ২০১৯ সালের ১৬ জুন ঢাকায় অনুষ্ঠিত স্কিল কম্পিটিশনে জাতীয় পর্যায়ে ৩য় স্থান অধিকার, বিগত ২০১৯ সালের ১৯ জুন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কর্তৃক আয়োজিত ৪০তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ-এ চট্টগ্রাম বিভাগে চ্যাম্পিয়ন এবং জাতীয় পর্যায়ে দ্বিতীয় বারের মত জাতীয় পুরস্কার অর্জন করেন।

এছাড়াও বিগত ২০১৯ সালের ২৯ আগস্ট সেরা উদ্ভাবনের কারণে উদ্ভাবক তরুণ বিজ্ঞানী জাহেদ হোসাইন নোবেলকে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কর্তৃক বঙ্গবন্ধু স্মারক সম্মাননা প্রদান করেন।

পরপর দুই বার জাতীয় পুরষ্কার অর্জন ও বঙ্গবন্ধু স্মারক সম্মাননা অর্জন করায় বিগত ২০২০ সালের ১২ জানুয়ারী গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তরুণ বিজ্ঞানী জাহেদ হোসাইন নোবেলসহ বাংলাদেশের ৮ জন ক্ষুদে ও তরুণ বিজ্ঞানীদের ৫ দিনের সরকারী শিক্ষা সফরে মালেশিয়া পাঠান জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!