Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | টংকাবতী খালে ‘বিবিবিলা বালুমহাল’ সম্পূর্ণ বন্ধ ঘোষণার আবেদন

টংকাবতী খালে ‘বিবিবিলা বালুমহাল’ সম্পূর্ণ বন্ধ ঘোষণার আবেদন

image_printপ্রিন্ট করুন

Lohagara Ctg 24-05-2018 1

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া উপজেলার উত্তর কলাউজান রসুলাবাদ পাড়ার রাবারড্যাম সংলগ্ন টংকাবতী খাল থেকে “বিবিবিলা বালুমহাল” সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ঘোষণা করার আবেদন জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এ ব্যাপারে গত ১৮ জুলাই লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসীর পক্ষে বশিরুল আলম, বালা মিয়া, টিশু দাশ ও জাকের।

অভিযোগে প্রকাশ, টংকাবতী খালে “বিবিবিলা বালুমহাল” নামক স্থানটি ইজারা দিয়ে প্রতি বছর সরকার যা রাজস্ব আদায় হয় তার চেয়ে স্থানীয়দের ক্ষতির পরিমাণ বহুগুণ বেশী। ইজারাদার জনৈক আবুল কাশেম চৌধুরী প্রকাশ বালু কাশেম ইজারাকৃত জায়গা থেকে বালু উত্তোলন না করে রাবারড্যাম সংলগ্ন এলাকা থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। যার ফলে খালের দু’পাশের লোকজন ও রাবারড্যাম শিকার হচ্ছে। ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের ফলে যে কোন সময় বিলীন হয়ে যেতে পারে খালের দু’পাড়ের লোকজনের বসতি ও রাবারড্যাম এবং সনাতন ধর্মালম্বীদের শ্মশান।

অভিযোগে আরো প্রকাশ, বালু খেকোদের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে এলাকার জনসাধরণ চলতি সনের ২১ মে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরারে অভিযোগ করেছিলেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২৩ মে তৎকালীন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিয়া আফরিন কচি সরেজমিন তদন্তপূর্বক বালু উত্তোলন বন্ধ করে দেন। কিন্তু ওই সময় উত্তোলনকৃত বালু ও ড্রেজার মেশিন জব্দ না করায় এবং এখনো বালু উত্তোলন থিতু থাকায় এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

এ ব্যাপারে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও অভিযুক্ত ইজারাদার জনৈক আবুল কাশেম চৌধুরী প্রকাশ বালু কাশেম মোবাইল ফোন রিসিভ না করায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!