Home | ব্রেকিং নিউজ | চুনতি সীরাত মাহফিলের আখেরি মোনাজাতে মহামারি থেকে মুক্তি ও বিশ্বশান্তি কামনা

চুনতি সীরাত মাহফিলের আখেরি মোনাজাতে মহামারি থেকে মুক্তি ও বিশ্বশান্তি কামনা

এলনিউজ২৪ডটকম : মহামারি থেকে মুক্তি, বিশ্বশান্তি কামনা ও পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য দোয়া করা হয় লোহাগাড়ার চুনতিতে অনুষ্ঠিত ১৯ দিনব্যাপী ৫১তম আন্তর্জাতিক সীরাতুন্নবী (সা.) মাহিফলের আখেরি মোনাজাতে। শনিবার (৬ নভেম্বর) ভোরে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন ড. মাওলানা এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী।

এ সময় মুসল্লিদের কান্নার আওয়াজে সীরাত ময়দানের পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে। আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয় পুরো এলাকা। এছাড়া বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে নিপিড়িত মজলুম আলেমদের জন্যও দোয়া করা হয়।

জানা যায়, শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে একটানা আখেরি মুনাজাতের আগ পর্যন্ত চলে নির্ধারিত বিষয়ে আলেমগণের আলোচনা। সমাপনী দিবসের চারটি অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন বান্দরবান মাদ্সার মুহতামিম মাওলানা মোহাম্মদ হোছাইন, ঠাকুরদীঘি হেদায়েতুল ইসলাম মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা সরওয়ার কামাল আজিজী, মাওলানা সিরাজুল আরেফীন ও মাওলানা হাফিজুল ইসলাম আবুল কালাম আজাদ।

আলোচনা করেন মাওলানা জিয়াউল করিম, কাজী মাওলানা নাছির উদ্দিন, ড. মাওলানা আবু বকর রফিক, ড. মাওলানা ঈসা শাহেদী, প্রফেসর ড. মাওলানা আহসান উল্লাহ, বায়তুশ শরফের পীর শাহ্ মাওলানা মুহাম্মদ আবদুল হাই নদভী, ড. মাওলানা এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী আস ছিদ্দিকী, মাওলানা ওবাইদুল্লাহ হামযা, মাওলানা এহসান উল্লাহ আব্বাসী, অধ্যাপক ড. মাওলানা গিয়াস উদ্দিন তালুকদার, হাফেজ মাওলানা শাহ আলম ও অধ্যাপক ড. হাফেজ মাওলানা শহিদুল ইসলাম বারাকাতি প্রমুখ।

চুনতি হাকিমিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা ফারুক হোসেন ও মাওলানা জিয়াউল করিমের যৌথ পরিচালনায় মাহফিলে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মাহফিল মোতাওয়ল্লী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাদা আবদুল মালেক ইবনে দিনার নাজাত। সমাপনী বক্তব্য রাখেন চুনতি হাকিমিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা ফারুক হোসেন।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ড. হারুনুর রশিদ, আবু তাহের, শাহনেওয়াজ, মাহবুবুল হক, মোহাম্মদ ইদ্রিস মিনহাজ, ইমাদ উদ্দিন, মাওলানা অলি উদ্দিন, শাহজাদা তৈয়বুল হক বেদার, শাহাজাদা আসমা উল্লাহ ইমরাত, শাহাজাদা ইমাম বাইহাকি, সাইফুদ্দিন মো. তারেক, কাজী আরিফ, জাহেদুর রহমান, ফজলে এলাহী আরজু, মাওলানা শামসুল আলম, হোছাইন মুহাম্মদ এরশাদ, মাওলানা কারী রবিউল্লাহ, মুহাম্মদ দিদারুল ইসলাম, মাওলানা আবু দাউদ মুহাম্মদ শাহ শরীফ, ক্বারী মাওলানা জালাল উদ্দীন মুনিরী, আবদুল্লাহ আকরাম আল হাদী, ক্বারী মাওলানা ওবাইদুল্লাহ ফজলে আব্বাসী ও হাফেজ মাওলানা আবদুল হামিদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, রাত যতো ঘনিয়ে আসে ঐতিহাসিক সিরাত ময়দান কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠে। প্যান্ডেল ছাড়িয়ে খোলা আকাশের নিচে জড়ো হতে থাকে মুসল্লিরা। কুয়াশা ও ঠান্ডা উপেক্ষা করে মানুষের উপস্থিতিতে পুরো ১৩ একর আয়তনের সীরাত ময়দান ছাড়িয়ে লোকে লোকারণ্য হয় আশপাশের গ্রাম-রাস্তাঘাট। পুরো ১৯ দিনব্যাপী উপস্থিত মুসল্লিদের জন্য তাবাররুকের ব্যবস্থা থাকে এ মাহফিলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!