ব্রেকিং নিউজ
Home | উন্মুক্ত পাতা | লোহাগাড়া-সাতকানিয়াবাসীকে ঈদ মোবারক ও আন্তরিক শুভেচ্ছা

লোহাগাড়া-সাতকানিয়াবাসীকে ঈদ মোবারক ও আন্তরিক শুভেচ্ছা

09

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া-সাতকানিয়াবাসী ও দেশ-বিদেশের সকল শুভাকাঙ্খীদের পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ঈদ মোবারক ও আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মরক্কোর আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয় আগাদীর’র আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের পরিচালক ও সহকারী অধ্যাপক এবং লোহাগাড়ানিউজ২৪ডটকম’র উপদেষ্টা লোহাগাড়ার কৃতিসন্তান মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মাহী।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার নির্দেশে হযরত ইব্রাহিম (আ.) ও তার প্রাণপ্রিয় পুত্র হযরত ইসমাইল (আ.) কোরবানির কঠিন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। আত্মসমর্পণ ও এ আত্মত্যাগের অতুলনীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। আল্লাহর নির্দেশে পশু কোরবানির বিধান সেই থেকে শুরু এবং হযরত ইব্রাহিম (আ.) যতদিন জীবিত ছিলেন ততদিন প্রতিবছর পশু কোরবানির মাধ্যমে আল্লাহর আনুগত্যের আদর্শ প্রতিষ্ঠার নজির সমুন্নত রাখেন। মহানবী হযরত মুহম্মদ (সা.) কোরবানির এই মহান আদর্শ বহাল রাখতে আদিষ্ট হন এবং তিনিও প্রতিবছর কোরবানি করেছেন। তিনিই এই প্রথা অনুসরণের জন্য তার উম্মতকে নির্দেশ দিয়ে গেছেন। পশু কোরবানির মাধ্যমে মহান আল্লাহপাকের কাছে আত্মসমর্পণ ও আত্মত্যাগের ঐকান্তিক আবেগ প্রকাশের সুযোগ নিয়ে আসে ইদুল আযহা।

মহানবী (স.) বলেছেন, কোরবানির দিন কোনো ব্যক্তির কোরবানির পশুর রক্ত ঝরানোর মতো আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে অধিক প্রিয় ও পছন্দনীয় আর কোনো কাজ নেই। ঈদুল আযহার মর্মবাণী হলো, তাকওয়া। আর তাকওয়ার অর্থ হলো, মুমিনের সেই সংকল্প, যাতে প্রয়োজন বোধে সে তার সবকিছু এমন কি প্রাণও আল্লাহপাকের নামে কোরবানি করতে তৈরি। পবিত্র কোরআনে স্পষ্ট ঘোষণা করা হয়েছে, কোরবানিকৃত পশুর গোশত বা রক্ত কোন কিছুই আল্লাহর কাছে পৌঁছায় না। বরং তার কাছে পৌঁছায় তোমাদের তাকওয়া। যে কোরবানির তাকওয়া নেই, মহান আল্লাহর দৃষ্টিতে সে কোরবানির মূল্যও নেই।

সকল মুসলিম ভাই-বোনদের আন্তরিকভাবে ঈদ মোবারক ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি এবং ঈদুল আযহা থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আহবান জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*