ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | দক্ষিণ চট্টগ্রামের বৃহত্তর কবুতরের হাট শান্তিরহাটে

দক্ষিণ চট্টগ্রামের বৃহত্তর কবুতরের হাট শান্তিরহাটে

S-Azam-Patiya-Picat-2

নিউজ ডেক্স : ‘কবুতর’ জনপ্রিয় এক পাখি। কবুতরকে আবার পায়রা, পারাবত, কপোত নামেও অনেকে চিনে থাকেন। শখ করে অনেকে কবুতর পোষেন। আর এ কবুতর বিক্রির বৃহত্তর হাট বসে পটিয়ায়। চট্টগ্রাম–কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়ার শান্তিরহাট বাজারে সপ্তাহে দু দিন বসে এ হাট। প্রতিদিন এ হাটে ৩০–৪০ জন বিক্রেতা কবুতর বিক্রি করে থাকে। দক্ষিণ চট্টগ্রামের ৮ উপজেলা থেকে হাটে কবুতর কেনা–বেচার জন্য আসে লোকজন।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম–কক্সবাজার আরাকান মহাসড়কের পাশে পটিয়া উপজেলার শান্তিরহাট বাজারটি প্রায় ৩ যুগ ধরে বসছে। এ বাজারে সবজি–মাছ–মাংস বিক্রি ছাড়াও মানুষের ব্যবহৃত দ্রব্যাদি বেচা–কেনা হয়ে থাকে। বিগত ১ যুগ ধরে এ বাজারে জমজমাট হয়ে উঠেছে কবুতরের কেনা–বেচা। সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, প্রত্যেক সপ্তাহে রবিবার ও বৃহস্পতিবার দুটি বাজারের সাথে এ হাট বসে। আর এতে প্রত্যেক হাটে ৩০–৪০ জন বিক্রেতা থাকে। শান্তিরহাট বাজারের ইজাদারের প্রতিনিধি এয়ার মোহাম্মদ জানায়, সপ্তাহে দুদিন বাজারের দিনে প্রচুর কবুতর কেনা–বেচা হয়। পটিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চল ছাড়াও দক্ষিণ চট্টগ্রামের প্রত্যক উপজেলা থেকে এ হাটে কবুতর কেনা–বেচার জন্য আসে। এক জোড়া অথবা দুটি কবুতরের দাম ২৫০–৩০০ পর্যন্ত। অনেক সময় ৪০০–৫০০ টাকাও বিক্রি হয়ে থাকে। কবুতর বিক্রি করতে আসা মো. আইয়ুব জানান, তিনি প্রত্যেক হাটে ৮০–১০০টি কবুতর বিক্রির জন্য আনেন। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে আসা মাত্রই তিনি ২০টির অধিক বিক্রি করেছেন। বিগত ৮ বছর ধরে এ হাটে তিনি কবুতর বিক্রির করতে আসছেন বলেও জানান। লোকমান নামের এক বিক্রেতা জানান, তিনিও ৩০–৪০টি বিক্রি করতে এনেছেন। এখানে উন্নত জাতের কিছু কবুতর জোড়া ৪ হাজার টাকা থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়। দেশী জাতের কবুতর বিক্রি করে থাকেন তিনি। কবুতর কিনতে আসা মো. আলমগীর জানান, তার পরিবারের জন্য তিনি এক জোড়া কবুতর কিনেছেন। ২৫০ টাকায় এক জোড়া নিলেও তা অন্য কোথাও থেকে নিতে বেশি টাকা প্রয়োজন হতো বলে তিনি জানান। স্থানীয়রা জানান, শান্তিরহাট বাজারে যেভাবে কবুতর কেনা–বেচা হয় তা দক্ষিণ চট্টগ্রামের আর কোথাও হয় না। যাতাযাতের সুবিধায় এ হাটকে বেঁচে নেয় অনেকে। এ কারনে দীর্ঘদিন ধরে এটি দক্ষিণ চট্টগ্রামের বৃহৎ কবুতরের হাট বলে পরিচিতি রয়েছে।

শান্তিরহাট ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি নুরশুল আলম জানান, সপ্তাহে রবিবার ও বৃহস্পতিবার শান্তিরহাট বাজার বসে। বাজারের এক পাশে কবুতর কেনা–বেচা খুব ভালোই হয়ে থাকে। বিগত কয়েক বছর ধরে আরো বেশি জমজমাট হয়ে উঠেছে বাজার। হাট থেকে কবুতর কেনা–বেচার জন্য দক্ষিণ চট্টগ্রামের উপজেলাগুলো থেকে অনেক লোকজন আসে। এটি দক্ষিণ চট্টগ্রামের সর্ববৃহৎ কবুতরের হাট বলেও তিনি জানান। –আজাদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*