ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | ইলিয়াস কাঞ্চনের মামলায় শাজাহান খানকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ

ইলিয়াস কাঞ্চনের মামলায় শাজাহান খানকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ

Capture-11

নিউজ ডেক্স : নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চেয়ারম্যান ও কিংবদন্তি অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চনের দায়ের করা ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলায় সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

biman-ad

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার প্রথম যুগ্ম জেলা জজ উৎপল ভট্টাচার্জ মামলাটি আমলে নিয়ে এ আদেশ দেন।

এর আগে বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ এনে ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে ঢাকার এক নম্বর যুগ্ম জেলা জজ উৎপল ভট্টাচার্যের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন ইলিয়াস কাঞ্চন। পরে মামলার গ্রহণযোগ্যতার বিষয়ে বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) শুনানি হবে বলে জানান ইলিয়াস কাঞ্চনের আইনজীবী মো. রেজাউল করিম।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত বছরের ৮ ডিসেম্বর পরিবহন শ্রমিক নেতা ও সংসদ সদস্য শাজাহান খান নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে একটি অনুষ্ঠানে নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন, তার পরিবারের সদস্য এবং সংগঠন নিয়ে মন্তব্য করেন। শাজাহান খান বলেন, ‘ইলিয়াস কাঞ্চন কোথা থেকে কত টাকা পান, কী উদ্দেশে পান, সেখান থেকে কত টাকা নিজে নেন, পুত্রের নামে নেন, পুত্রবধূর নামে নেন, সেই হিসাব আমি জনসম্মুখে তুলে ধরব।’

তার ওই বক্তব্য বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। শাহজাহান খানের এমন মন্তব্যকে উদ্ভট, বানোয়াট ও মিথ্যা আখ্যা দিয়ে বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তবে শাজাহান খান তার বক্তব্য প্রত্যাহার কিংবা ক্ষমা প্রার্থনা না করায় ইলিয়াস কাঞ্চন এবার আইনি পদক্ষেপ নিয়েছেন।

অভিযোগ থেকে আরও জানা যায়, গত বছরের ১৯ নভেম্বর বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক ও শ্রমিক ঐক্য পরিষদ ধর্মঘটের ডাক দেয়। ওই ধর্মঘটে বিবাদীর (শাজাহান খান) প্ররোচণায় শ্রমিকরা ব্যানার টানিয়ে বাদীর (ইলিয়াস কাঞ্চন) কুশপুত্তলিকা তৈরি করে ও জুতার মালা দিয়ে হেয় প্রতিপন্ন করে। যা পরবর্তীতে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। এতে বাদীর ১০০ কোটি টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে বাদী আদালতে এ মামলা করেন। মামলা নং- ০৯/২০২০।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!