ব্রেকিং নিউজ
Home | সাহিত্য পাতা | অামি অামার কথা বলছি

অামি অামার কথা বলছি

477

ফিরোজা সামাদ : অামি ফিরোজা, অতি সাধারন একজন মানুষ । আমার বাস্তব জীবন ফেসবুক জীবন থেকে সম্পূর্ণ উল্টোদিকে বহমান । অন্যান্য সকলের মতোই ফেসবুকে আমি খাই না, ঘুমাই না, উপার্জন করি না, অন্য সকলের মতো বাস্তব জীবনের কোনো বাধ্যবাধকতাই অামার নেই । এখানে আমার আসার একমাত্র কারন, কৌতুহল , মানসিক বিনোদন, বহুদিনের চেনা জানা স্বজনদের কথা জানা এবং সামান্য কোনো প্রতিভা থাকলে তার বিকাশ সাধন, বিভিন্ন স্ট্যাটাস পড়া, প্রয়োজনে মন্তব্য করা, কোনো ব্যক্তিগত স্ট্যাটাস দেয়ার মতো কিছু থাকলে তা দিতে চেষ্টা করি ।

ফেসবুক থেকে অর্জন আমার ভালো কিছু জ্ঞানী লোকদের সংস্রবে এসে জ্ঞানার্জন। জ্ঞান ছোটবড়ো সবার কাছেই শিক্ষনীয় বিষয়,যা অামি সম্মানের সাথে গ্রহন করে থাকি। এটা অামার নৈতিকতার একটি অংশ। অামার নিজের কাজ যে নির্ভুল তা অামি কখনোই মনে করি না।

অামার এই লেখাটির একটিই উদ্দেশ্য, আমি যাদের শ্রদ্ধা করি, সম্মান করি, ভালবাসি – তারা শুধু ফিরোজাকে বলুন, সদুপদেশ দিন, রাগ করুন, ক্ষোভ থাকলে মোবাইলে বা ইনবক্সে বলুন। স্পষ্ট সত্যি কথা শুনতে অামি ভয় পাইনা। হিতৈষী ভেবে গ্রহণ করবো। কিন্তু কোনো ব্যক্তিগত রোষানলের জের ধরে উপদেশ দিতে এলে, আমি সেখানে নেই। সাতসমুদ্র তেরনদী সাঁতার কেটে কেটে ভালোমন্দ বোঝার বুদ্ধি অামার হয়েছে। একটি কথা স্পষ্ট বলতে চাই চালাকি করতে না জানলেও যদি কেও বোকা ভেবে হেয়ালি কথা বলেন অামি তার সাথে নেই বরং প্রয়োজনে সে অাপনাঅাপনি অামার টাইমলাইন থেকে সরে যেতে পারেন।

আমি যা লিখি তা অামার ক্ষুদ্র জ্ঞানের বহিঃপ্রকাশ। এটা নিয়ে গর্ব করার কিছু অাছে বলে অামি মনে করিনা। তবে অামার কল্পনাশক্তির বাইরে কাউকে ছড়িয়ে যেতে দেখলে মুগ্ধ হই । কেননা আমার সীমাবদ্ধতা সেখানে পৌছায় নি বলেই তার প্রশংসা করতে ভালো লাগে, পিছপা হইনা।

সাতাশ বছর চাকুরী করেছি। নিজের সামান্য মেধার বিকাশ ঘটিয়ে কর্মজীবনে প্রসংশার জায়গাটুকু অর্জন
করেছি নিজেরই যোগ্যতায় কারো দানে নয় !! এ অামার এখন অহঙ্কার ও প্রজন্মকে বোঝানোর সঞ্চয় !!

কাউকে অসম্মান করতে আমি ফেসবুকে আসিনি । করবোও না । আমায় যারা চেনেন, জানেন, তারা আমার কথাগুলো বুঝবেন । যে বুঝবে না, সে ফিরোজাকে চিনতে পারেনি আজো । আমার প্রয়োজন নেই চেনাবার ।

পরনিন্দা পরচর্চা অামার পরিবারে নিষিদ্ধ। অামার সন্তানদের দূরে রেখেছি। কে শত্রু কে মিত্র চিহ্নিত করতে দেইনি। আমিও বিষয়টি মনেপ্রাণে ঘৃণা করি। অার সেটা করে যাবো যতদিন বেঁচে থাকবো।

অামার লেখা পড়ে ভালো লাগলে আমি আপনার বোন, বন্ধু – নইলে শুধুই নগন্য ফিরোজা । কেউ আহত হলে অামি হতাশ। আমি স্পষ্ট কথা বলি। কাউকে অাঘাত দিয়ে, অপদস্থ করে কেউ কোনোদিন ভালো থাকতে পারে না। এটা অামার বিশ্বাস ।

সকলের জন্য শুভকামনা,ভালো থাকুন সুস্হ দেহে প্রসন্ন হৃদয়ে !!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*