Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | পরপর দু’টি শক্তিশালী ঝড়ের মুখে মার্কিন উপকূল, সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বাসিন্দাদের

পরপর দু’টি শক্তিশালী ঝড়ের মুখে মার্কিন উপকূল, সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বাসিন্দাদের

image_printপ্রিন্ট করুন

আন্তর্জাতিক ডেক্স : পরপর দু’টি শক্তিশালী ঝড়ের মুখে কিউবা এবং যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা অঙ্গরাজ্যের উপকূলীয় এলাকা থেকে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বাসিন্দাদের। এমনিতেই ভয়াবহ বন্যায় হাইতির রাজধানীর রাস্তাঘাট নদীতে পরিণত হয়েছে, তার ওপর শক্তিশালী ঝড় তাদের আরও বড় বিপদে ফেলতে চলেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড় মার্কো প্রবল শক্তি নিয়ে সোমবার লুইজিয়ানা উপকূলে আঘাত হানতে পারে। এরপরেই আসতে যাচ্ছে লরা নামের আরেকটি সামুদ্রিক ঝড়। এটি বর্তমানে ডমিনিকান রিপাবলিকের ওপর রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ঝড়টি হিস্পানিওলা ও কিউবা পার হয়ে আগামী বৃহস্পতিবার মার্কিন উপকূলে আঘাত হানবে।

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবি ও ভিডিওতে হাইতির পোর্ট-অ্য-প্রিন্সের মানুষজনকে কোমর সমান কর্দমাক্ত পানি পেরিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে। গত কয়েক বছরের মধ্যে দেশটির রাজধানীতে এটাই সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যার ঘটনা।

এর মধ্যেই শক্তিশালী ঝড় লরার আঘাতে হাইতিতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঝড়টির জন্য প্রস্তুত হচ্ছে কিউবাও। ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের বৃহত্তম দ্বীপ হিস্পানিওলার পূর্বাংশের জনগণকে সরিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে। রোববার রাতেই দ্বীপটিতে ঝড় আঘত হানবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পরপর দু’টি সামুদ্রিক ঝড় মার্কিন উপকূলে দীর্ঘমেয়াদি বিপজ্জনক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারে বলে সতর্ক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টারের আবহাওয়াবিদ স্ট্যাসি স্টুয়ার্ট।

সম্ভাব্য বন্যা ও ঝড়ের কারণে মানুষজনকে আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়ায় তাদের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণেরও উচ্চঝুঁকি তৈরি হয়েছে। নিউ অরলিন্সের তুলানে ইউনিভার্সিটি জানিয়েছে, সম্ভাব্য বন্যা ও বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে সোমবার তারা করোনা পরীক্ষা কেন্দ্রটি বন্ধ রাখবে। ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের সামাজিক দূরত্বের দিকনির্দেশনা বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!