Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | নাতির জন্মের আগেই টাকা নেন নানি, ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর বিক্রি

নাতির জন্মের আগেই টাকা নেন নানি, ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর বিক্রি

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : অন্তঃসত্ত্বা তানিয়া বেগমকে বাড়ি থেকৈ তাড়িয়ে দেন স্বামী। বাধ্য হয়ে শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে রাঙ্গামাটির কাউখালী উপজেলায় বাবা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীরের বাড়িতে বসবাস করছিলেন তিনি। এরই মধ্যে তানিয়ার গর্ভে থাকা সন্তান বিক্রির পরিকল্পনা করেন তার মা (নবজাতকের নানি) রাবেয়া খাতুন।

ভূমিষ্ঠ হলেই মেয়ে তানিয়ার সন্তানটি দেওয়ার কথা বলে হাটহাজারীর উত্তর মাদার্সার মৃত নুর মোহাম্মদের ছেলে মোহাম্মদ হারুন ও তার বোন মনোয়ারার কাছ থেকে অগ্রিম ৫৭ হাজার টাকা নেন রাবেয়া।

গত ২ অক্টোবর নিজ বাড়িতে তানিয়া বেগম সন্তান জন্ম দেন। নবজাতক কিছুটা অসুস্থ হলেই তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) মেয়ের অনুপস্থিতিতে নানি রাবেয়া কৌশলে হারুন ও মনোয়ারাকে নবজাতকটি দিয়ে দেন।

কিছুক্ষণ পর তার মা তানিয়া এসে নিজের সন্তানকে না পেয়ে কান্নাকাটি শুরু করেন। এসময় নবজাতকের নানি সবাইকে জানান, ‘হাসপাতাল থেকে বাচ্চাটি চুরি হয়ে গেছে।’

এদিকে, নবজাতক চুরির ঘটনায় মা তানিয়া বেগম নগরীর পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে হাটহাজারীর ফতেয়াবাদ এলাকা থেকে বুধবার (৬ অক্টোবর) তিনজনকে গ্রেফতার করে।

তাদের মধ্যে নবজাতকের নানি রাবেয়া খাতুনও রয়েছেন। গ্রেফতারকৃত অন্য দুজন হলেন, হাটহাজারীর উত্তর মাদার্সার মৃত নুর মোহাম্মদের পুত্র মোহাম্মদ হারুণ (৫৫) ও তার বোন মনোয়ারা বেগম (৩৮)। পরে পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে গর্ভে থাকা সন্তান বিক্রি ও চুরির পুরো বিষয়টি জানতে পারেন।

পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল উদ্দিন বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাবেয়া টাকার বিনিময়ে হারুণ ও মনোয়ারার কাছে নবজাতক বিক্রির কথা স্বীকার করেছেন। নবজাতকের মায়ের করা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাদের তিনজনকে বুধবার আদালতে হাজির করা হয়।’ জাগো নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!