Home | ব্রেকিং নিউজ | চরম্বায় রোহিঙ্গা দম্পতির জন্মসনদ জব্দ

চরম্বায় রোহিঙ্গা দম্পতির জন্মসনদ জব্দ

image_printপ্রিন্ট করুন

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া চরম্বা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাষ্টার শফিকুর রহমান রোহিঙ্গা দম্পতির জন্মসনদ জব্দ করেছে। বুধবার (১৩ অক্টোবর) হাতের লেখা জন্মসনদ অনলাইন করতে আসলে তা জব্দ করা হয়।

জানা যায়, চরম্বা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান দায়িত্ব গ্রহণ করেন ২০১৬ সনের ১২ আগস্ট। কিন্তু হাতে লেখা জন্মসনদে দেখা যায় ২০১৪ সনে বর্তমান চেয়ারম্যানের সীল ও স্বাক্ষর।

রোহিঙ্গা দম্পতি জানু বেগম ও গুরা মিয়া জানান, তারা দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত ইউনিয়নের মাইজবিলা এলাকায় বসবাস করে আসছে। তাদের রয়েছে ২ ছেলে ও ৩ মেয়ে। স্থানীয় জনৈক এক ব্যক্তি টাকার বিনিময়ে তাদের জন্মসনদ করে দিয়েছিলেন। তবে তারা জনৈক ব্যক্তির পরিচয় জানাতে পারেনি। স্থানীয় চৌকিদার নুরুল আবছারের পরামর্শে জন্মসনদ ২টি অনলাইন করতে যান। ইউনিয়ন পরিষদের গেলে চেয়ারম্যান জন্মসনদ ২টি জব্দ করেন।

চরম্বা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ওহিদুর রহমান জানান, সন্তানদের জন্মনিবন্ধন করতে ওই দম্পতি তাদের হাতের লেখা জন্মসনদ অনলাইন করতে আবেদন করেন। অনলাইন জন্মসনদের কপিও বের করা হয়েছিল। হাতের লেখা জন্মসনদ যাচাই-বাচাই করার সময় চেয়ারম্যানের সীল ও স্বাক্ষর সন্দেহজনক হয়। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তারা রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করেন। চেয়ারম্যানের নির্দেশ ভুয়া জন্মসনদ ২টি জব্দ করা হয়। রোহিঙ্গা দম্পতি জনৈক খানে আলম নামে এক ব্যক্তি জন্মসনদ ২টি তৈরি করে দিয়েছেন বলে জানায়।

অভিযুক্ত মো. খানে আলম জানায়, ওই রোহিঙ্গা দম্পতিকে আমি চিনি না। খবর নিয়ে জানতে পারলাম ইউনিয়ন পরিষদে ওই রোহিঙ্গা দম্পতির কাছ থেকে জোরপূর্বক আমার নামে স্বীকারোক্তি আদায় করে নেয় চেয়ারম্যান ও সচিব। এ ব্যাপারে তিনি নিরপেক্ষ তদন্ত দাবী করেন।

চরম্বা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাষ্টার শফিকুর রহমান জানান, রোহিঙ্গা দম্পতি জন্মসনদ অনলাইন করতে আসলে ইউপি সচিব সনদ ২টি জব্দ করেন। ভুয়া জন্মসনদ তৈরির সাথে কে বা কারা জড়িত তা তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে জন্মসনদে ২০১৪ সনের সীল ও স্বাক্ষর ভুয়া।

লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আহসান হাবিব জিতু জানান, জন্মসনদ সন্দেহ হলে চেয়ারম্যান জব্দ করতে পারেন। জন্মসনদ অনলাইন হলেও তা বাতিল করার ক্ষমতা চেয়ারম্যানের রয়েছে। তবে জালিয়াতি করে থাকলে সে ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!