Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | লুটেপুটে খায় এমন প্রার্থীদের বর্জন করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

লুটেপুটে খায় এমন প্রার্থীদের বর্জন করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

president01-20181008202845

নিউজ ডেক্স : সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ লুটেপুটে খায় এমন প্রার্থীদের বর্জন করে ভালো মানুষকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

তিনি বলেন, যে দলকে ভোট দিলে দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি হয়, দেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যায় সেই দলকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করা উচিত। সেই সঙ্গে রাজনৈতিক দলগুলোকে সৎ, যোগ্য ও ভালো মানুষকে আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন দিতে হবে। সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ লুটেপুটে খায় এমন প্রার্থীদের বর্জন করে ভালো মানুষকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করতে হবে।

সোমবার বিকেলে কিশোরগঞ্জ শহরের গুরুদয়াল সরকারি কলেজ মাঠে গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। দ্বিতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ায় কিশোরগঞ্জ নাগরিক কমিটি রাষ্ট্রপতিকে এ গণসংবর্ধনা দেয়।

হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে সংবর্ধনার জবাবে রাষ্ট্রপতি বলেন, এই প্রিয় ক্যাম্পাসে আমার জীবনের দীর্ঘ সময় কেটেছে। কিশোরগঞ্জের মাটি ও মানুষের ভালোবাসায় আমি বেড়ে উঠেছি। রাজনীতি করার সময় রিকশাওয়ালা-ফেরিওয়ালার কাছ থেকেও সহযোগিতা নিয়েছি। তাই আমি তাদের কাছে ঋণী। আজকে আমার রাষ্ট্রপতি হওয়ার পেছনেও তাদের অবদান আছে বলে আমি মনে করি।

সরকারি কর্মচারী ও রাজনীতিবিদদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মানুষকে ভালোবাসতে শিখেন। মানুষকে মানুষ বলে মনে করতে হবে। তাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতে হবে।

রাষ্ট্রপতি তার বক্তৃতার একপর্যায়ে বিদেশে চিকিৎসাধীন অসুস্থ জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের জন্য সবার কাছে দোয়া চান।

কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমানের সভাপতিত্বে ও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ আজিজুল হকের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন রাষ্ট্রপতির স্ত্রী রাশেদা খানম, কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিন, কিশোরগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মো. আফজাল হোসেন, কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রাষ্ট্রপতিপুত্র রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক, সংরক্ষিত আসনের এমপি দিলারা আসমা, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. কামরুল আহসান শাহজাহান, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম এ আফজাল, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও বিসিবির পরিচালক সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু, কিশোরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহমুদ পারভেজ, রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ও রাষ্ট্রপতির ছেলে রাসেল আহমেদ তুহিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতিকে পৌরসভার পক্ষ থেকে সোনার চাবি উপহার দেয়া হয়। এটি বঙ্গভবনে রাখা হবে বলে জানান রাষ্ট্রপতি। অনুষ্ঠানের শুরুতে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন তিনি।

দ্বিতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার পর তিনদিনের সরকারি সফরে সোমবার কিশোরগঞ্জ আসেন মো. আবদুল হামিদ। দুপুর ২টার দিকে রাষ্ট্রপতিকে বহনকারী বিমানবাহিনীর একটি হেলিকপ্টার কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্টেডিয়ামে অবতরণ করে। সেখান থেকে কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউসে পৌঁছালে রাষ্ট্রপতিতে গার্ড অব অনার দেয়া হয়। পরে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে গুরুদয়াল সরকারি কলেজ মাঠে নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*