ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন স্বেচ্ছায়, নিরাপদে ও সম্মানজনকভাবে হবে : সুইস প্রেসিডেন্ট

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন স্বেচ্ছায়, নিরাপদে ও সম্মানজনকভাবে হবে : সুইস প্রেসিডেন্ট

hfhf
কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া : রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সুইস প্রেসিডেন্ট আঁলা বেরসে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা যাতে স্বেচ্ছায়, নিরাপদে এবং সম্মানের সঙ্গে নিজ দেশ মিয়ানমারে ফিরে যেতে পারে সে লক্ষ্যে সুইজারল্যান্ড সরকার কাজ করবে বলে জানিয়েছেন সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আঁলা বেরসে। তিনি বলেছেন, ‘শরণার্থী সংকটের একটি স্থায়ী সমাধানের জন্য বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সরকারের মধ্যে চলমান অগ্রগতিকে সুইজারল্যান্ড স্বাগত জানায়। সেই সঙ্গে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবর্তন স্বেচ্ছায়, নিরাপদে ও সম্মানজনকভাবে হবে বলেও আশা রাখি।’
মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) বেলাল ১টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়ায় কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের পর তিনি এসব কথা বলেন। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সংক্ষিপ্ত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট আঁলা বেরসে বলেন, “বাংলাদেশে আগত রোহিঙ্গাদের জরুরি সহায়তায় ‘সুইস মানবিক সাহায্য সংস্থা’ ২০১৭ সালে ৮.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা দিয়েছে। ২০১৮ সালেও সুইজারল্যান্ড ১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অতিরিক্ত সহায়তা দেবে এবং মানবিক প্রচেষ্টায় যুক্ত থাকবে। এর ফলে কক্সবাজারের স্থানীয় কমিউনিটিও উপকৃত হবে।’
সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আঁলা বেরসে ক্যাম্প পরিদর্শনের সময় মিয়ানমারে নির্যাতনের শিকার ১০ রোহিঙ্গার সঙ্গে কথা বলেন এবং রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরসহ দুই দেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে দুপুর ১২টার সুইস প্রেসিডেন্ট কক্সবাজার সদর জেলা হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। সেখানে আনুষ্ঠানিকভাবে চিকিৎসা সরঞ্জামসহ সুইস অনুদান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এসময় স্থানীয়দের পাশাপাশি আগত রোগিঙ্গাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন সুইস প্রেসিডেন্ট।
এসময় সুইস প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় বাংলাদেশে নিয়োজিত জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থাসহ অন্যান্য উন্নয়ন অংশিদারদের সঙ্গে সুইজারল্যান্ড ঘনিষ্টভাবে কাজ করবে।’
মিয়ানমারে নির্যাতন থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের অবস্থা সরেজমিন দেখতে মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে কক্সবাজার পৌঁছান সুইস প্রেসিডেন্ট। বিমান বন্দর থেকে তিনি সরাসরি কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি হাসপাতালের ল্যাবরেটরি, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও রোগীদের বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখেন। দুপুর ১২টার দিকে তিনি উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। পরে সেখানে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থাসহ বিভিন্ন সংস্থার কার্যক্রম ঘুরে দেখেন।
সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে ১০৭ কোটি ৮ লাখ ১৪ হাজার ৯৯১ টাকা (১ ফ্রাঁ সমান ৮৯ টাকা ২৩ পয়সা) সহায়তার ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট আঁলা বেরসে। চার দিনের সফরে রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকায় পৌঁছান সুইস প্রেসিডেন্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*