Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | মিয়ানমারে সেনাবিরোধী আন্দোলনে গুলি, নিহত ২

মিয়ানমারে সেনাবিরোধী আন্দোলনে গুলি, নিহত ২

image_printপ্রিন্ট করুন

আন্তর্জাতিক ডেক্স : মিয়ানমারের মান্ডালে শহরে শনিবার পুলিশের গুলিতে অন্তত দু’জন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। খবর এএফপির।

শহরের জরুরি সেবাদানকারী সংস্থা পারাহিতা দারহির স্বেদ্ধাসেবী কো অং এএফপিকে বলেন, ‘২০ জন আহত হয়েছেন ও দু’জন মারা গেছেন।’

মান্ডালেতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে বিক্ষোভকারীরা ইটপাটকেল ছোড়ে। জবাবে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছোড়ে ও গুলি চালায়। তবে এটি রাবার বুলেট নাকি লাইভ রাউন্ড গুলি তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ভয়েস অব মিয়ানমারের সহকারী সম্পাদক লিন খাইয়াংসহ একাধিক গণমাধ্যম কর্মী জানিয়েছেন, মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে একজন মারা গেছেন।

এক স্বেচ্ছাসেবী চিকিৎসক দু’জন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘একজন মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। আরেকজন বুকে গুলিবিদ্ধ হওয়ার কিছুক্ষণ পরে মারা যান।’ এ বিষয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী এক অভ্যুত্থানের পর ক্ষমতাসীন দল এনএলডি’র নেতা অং সান সু চি ও সরকারের মন্ত্রীদের আটক করে। এর কয়েকদিন পর থেকেই হাজার হাজার জনতা সামরিক জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে দেশটির বিভিন্ন রাস্তায় বিক্ষোভ শুরু করে।

অভ্যুত্থানের পর থেকে শত শত বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে অনেকেই আছেন সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারী যারা ধর্মঘটের ডাক দিয়ে কাজে ইস্তফা দিয়েছেন।

শনিবার মিয়ানমারের কয়েকটি শহরে জাতিগত সংখ্যালঘু, কবি, পরিবহন শ্রমিকসহ সর্বস্তরের জনতা রাস্তায় বিক্ষোভ করে। সেনাবাহিনীকে ক্ষমতা ছাড়তে ও সু চিকে মুক্তি দেয়ার দাবি জানায় তারা।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারে সেনাবিরোধী এক বিক্ষোভকারী গতকাল মারা গেছেন। পুলিশের গুলিতে আহত হয়ে গত ১০ দিন ধরে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছিলেন তিনি। শুক্রবার মিয়া থোয়ে থোয়ে খাইন নামে সদ্য ২০ পেরোনো ওই তরুণী মারা যান। অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে এটিই ছিল প্রথম মৃত্যুর ঘটনা।

শনিবার ইয়াঙ্গুনে খাইনের জন্য স্মরণসভার আয়োজন করেন বিক্ষোভকারীরা। নেপিদোতেও একইরকম কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!