ব্রেকিং নিউজ
Home | অন্যান্য সংবাদ | পরকালে আল্লাহর সামনে উপস্থিতি সুনিশ্চিত

পরকালে আল্লাহর সামনে উপস্থিতি সুনিশ্চিত

Quran-Top20170117080740

ধর্ম ডেস্ক : আল্লাহ তাআলা সব উপদেশ ও হেদায়েত আসার পরও লোকেরা সোজা পথে তথা ইসলামের পথে চলে না। লোকেরা মনে করে যে, আল্লাহ তাআলা পরকালের কঠিন সময় মেঘমালার ছায়াসহ ফেরেশতাদের নিয়ে তাদের মধ্যে আগমন করবেন।

অথচ যারা এ দুনিয়ায় আল্লাহর বিধি-বিধান পালন করবে না। ইসলামে পরিপূর্ণভাবে প্রবেশ করে কুরআনের হেদায়েত গ্রহণ করবে না। ইসলামের বিধান ও হেদায়েত অমান্যকারীদের জন্য আল্লাহ পরকালে কঠোর হবেন। দুনিয়ার সবাইকেই একদিন (পরকালে) আল্লাহর কাছে ফিরে যেতে হবে।  এ আয়াতে আল্লাহ তাআলা কাফেরদেরকে ধমক দিয়ে ইরশাদ করেন-

Quran

আয়াত পরিচিতি ও নাজিলের কারণ
সুরা বাকারার ২১০ নং আয়াতে আল্লাহ তাআলা কাফেরদের ধমক দিয়ে বলছেন যে, তারা কি কিয়ামতেরই অপেক্ষা করছে; যে দিন সত্যের সঙ্গে ফয়সালা হয়ে যাবে এবং প্রত্যেক ব্যক্তি তার কৃতকর্মের ফল ভোগ করবে? অথচ আল্লাহ তাআলার নিকট সবাইকে প্রত্যাবর্তন করতে হবে।

আলোচ্য আয়াতে বলা হচ্ছে যে, সত্য সুস্পষ্টভাবে প্রকাশিত হওয়ার পরও যারা আল্লাহ ও রাসুলের প্রতি পরিপূর্ণ ঈমান আনে না, তাদের সম্পর্কে কঠোর সতর্কবাণী উচ্চারণ করেই এ আয়াত নাজিল করা হয়।

আয়াতে বলা হয়, তারা কি শেষ বিচারের দিনের অপেক্ষা করছে, যেদিন আল্লাহ মেঘমালার ছায়া নিয়ে আগমন করবে ফেরেশতাদের সাথে নিয়ে। যেদিন সবকিছুর মীমাংসা হয়ে যাবে, যেদি আসমান-জমিন সব কিছু ধ্বংস হয়ে যাবে, যেদিন ফেরেশতাগণ কাতারবন্দি হয়ে দণ্ডায়মান থাকবেন, যেদিন জাহান্নামকে হাজির করা হবে; তারা কি সেদিনের অপেক্ষা করছে? অথচ সেদিন কোনো নেক আমল করার সুযোগ থাকবে না।

প্রকৃত অবস্থা হবে এ রকম যে, তারা আল্লাহ তাআলার প্রতি, তাঁর রাসুলের প্রতি, কুরআনের প্রতি বিশ্বাসই করে না অথচ তাদেরকে আল্লাহর নিকট প্রত্যাবর্তন করতে হবে এবং সব কিছুর পরিণামও তাঁর নিকট রয়েছে। সে অবশ্যম্ভাবী পরিণামের কথা স্মরণ রেখে প্রত্যেকেরই সতর্ক হওয়া উচিত।

পরিষেশে…
আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর জন্য বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ওপর যে কুরআনের বিধান ও হেদায়েত নাজিল করেছেন। তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে ইসলামে পরিপূর্ণভাবে প্রবেশ করা। কারণ কিয়ামতের দিন অবশ্যই প্রত্যেককে আল্লাহর নিকট প্রত্যাতর্বন করতে হবে। আল্লাহ তাআলা সবাইকে সেদিন প্রস্তুতি গ্রহণ করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*