ব্রেকিং নিউজ
Home | অন্যান্য সংবাদ | কক্সবাজার থেকেই পর্যটকরা সরাসরি যাবে সেন্টমার্টিন

কক্সবাজার থেকেই পর্যটকরা সরাসরি যাবে সেন্টমার্টিন

RZQ7dUBG0hfG3

নিউজ ডেক্স : টেকনাফ থেকে নয়, এবার কক্সবাজার থেকেও সরাসরি সেন্টমার্টিন রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল করবে। সরাসরি সেন্টমার্টিন যাওয়া স্বপ্নের জাহাজ ‘এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন হবে আজ বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৩ টায়।

এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে উদ্বোধন করবেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আবদুস সামাদ বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া কক্সবাজারের সাংসদ সদস্যবৃন্দ, জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার), বিআইডব্লিউটিসি এর উর্ধ্বতন কর্মকতা, জনপ্রতিনিধি ও বিশিষ্টজনেরা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন।

জাহাজটি পরিচালনায় থাকা কর্ণফুলী শিপ বিল্ডার্স লি. এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার এম.এ রশিদ বিষয়টি জানিয়েছেন।

জাহাজটির স্থানীয় পরিচালক ও এমভি ফারহান এক্সপ্রেস ট্যুরিজম এর স্বত্বাধিকারী হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর জানান, উদ্বোধনের পর পরই জাহাজটি অতিথি ও ভিভিআইপিদের নিয়ে বঙ্গোপসাগরে নৌবিহারে যাবে। নৌবিহার থেকে ফিরে এসে উদ্বোধন উপলক্ষে সন্ধ্যায় কক্সবাজার শহরের একটি তারকামানের হোটেলে রয়েছে অতিথিদের সম্মানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নৈশভোজ। বিলাস বহুল পর্যটকবাহী জাহাজ এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস উদ্বোধনের পরদিন (৩১ জানুয়ারী) শুক্রবার থেকেই পর্যটকরা কক্সবাজার থেকে সরাসরি সাগর পথে সেন্টমার্টিন ভ্রমন করতে পারবেন।

পরিচালক এম হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর জানান, স্বপ্নের জাহাজটি পরিচালনায় থাকছে কর্ণফুলী শিপ বিল্ডার্স লি.। কক্সবাজারে জাহাজটির সার্বিক পরিচালনা করবেন ফারহান এক্সপ্রেস ট্যুরিজম। এই জাহাজটি হচ্ছে, বাংলাদেশ অভ্যান্তরীন নৌ পরিবহন সংস্থা বিআইডব্লিউটিসির জার্মানি থেকে আমদানিকৃত উপকূলীয় যাত্রিবাহী জাহাজ বহরের লিজেন্ডারি নৌযান সাবেক এম.ভি আলাউদ্দিন আহমেদ। যা বর্তমানে এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস নামে রিবডি করে নতুনভাবে, নতুন সাজ সজ্জায় রূপান্তরিত হয়েছে।

biman-ad

কক্সবাজার শহরের উত্তর নুনিয়াছড়া (বিমানবন্দর রোড) বিআইডব্লিউটিসি এ ঘাট থেকে প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন এর উদ্দেশ্যে নিয়মিত ছেড়ে যাবে পর্যটকদের স্বপ্নের এ জাহাজটি। কক্সবাজার বিআইডব্লিউটিসি এ ঘাট থেকে ছাড়বে প্রতিদিন সকাল ৭ টায়। সেন্টমার্টিন থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে ছাড়বে প্রতিদিন বিকাল ৩টায়। উভয় দিক থেকে গন্তব্যে পৌছতে সময় লাগবে প্রায় ৫ ঘন্টা। কিছুদিন পর হয়ত সেন্টমার্টিন থেকে ফেরার সময় আরো ১ ঘন্টা পেছানো হতে পারে। জাহাজটি সেন্টমার্টিন যাওয়ার সময় দিনের বেলার সমুদ্রের অপরূপ সৌন্দর্য ও কক্সবাজার আসার সময় সন্ধ্যা ও রাত্রিবেলার বঙ্গোপসাগরের নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন পর্যটকেরা। এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস জাহাজের ইকোনমি আসনের (২য় শ্রেণির চেয়ার) ভাড়া আসা-যাওয়া জনপ্রতি ২ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া বিজনেস শ্রেণি আসন (১ম শ্রেণি চেয়ার) ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ২ হাজার ৫শ’ টাকা। মোট ১৭ টি লাক্সারি ক্লাস কেবিন রয়েছে এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস জাহাজে। এদের মধ্যে ইকোনমি শ্রেণির কেবিনের (২য় শ্রেণি) ভাড়া ১২ হাজার টাকা ও লাক্সারি ক্লাস (ভিআইপি) কেবিনের ভাড়া ১৫ হাজার টাকা। প্রতিটি কেবিন ২ জন এর জন্য প্রযোজ্য, অতিরিক্ত জনপ্রতি আলাদা সাধারণ টিকেট কেটে নিতে হবে। প্রতিটি টিকেট এর সাথে সৌজন্যমূলক নাস্তা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আর ভাড়া হচ্ছে আপ ডাউন বা আসা যাওয়া প্যাকেজ। কোন যাত্রী ভিন্ন তারিখে ফিরতে চাইলে তা টিকেট সংগ্রহ করার সময় উল্লেখ করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!