Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | অনলাইনে পণ্য বিক্রির নামে ‘অভিনব’ প্রতারণা অভিযোগ

অনলাইনে পণ্য বিক্রির নামে ‘অভিনব’ প্রতারণা অভিযোগ

194658Untitled-1_copy

নিউজ ডেক্স : অনলাইনে পণ্য বিক্রির নামে প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে Imported Products in Bangladesh নামের একটি অনলাইন ভিত্তিক ‘বাণিজ্যিক’ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। জানা গেছে ফেসবুকের মেসেজে অর্ডার করতে গিয়ে আগে পেমেন্ট নিয়ে নেয়, এরপর তারা ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যায়।   পেমেন্ট করার পর গ্রাহককে ব্লক করা দেয়া হয়।

মিতুর সাথে প্রতারণা করে ব্লক করে দেয়া হয়, নারায়ণগঞ্জের আরেক নারীর সঙ্গে প্রতারণা করে পণ্য না দিয়ে ব্লক করে দেয়া হয়

জানা গেছে, গাজীপুরের মিতু নামের এক গৃহবধূ ওই অনলাইন কম্পানির ফেসবুকে দেয়া বাচ্চাদের খেলার জন্য সুদৃশ কিটি মোবাইল ফোন অর্ডার করেন। অর্ডার করার সময় মেসেজে জানানো হয় আমরা ‘ক্যাশ অন ডেলিভারি করি না’ আগে টাকা পাঠাতে হবে। ওই নারী তাদের ইনবক্সে দেয়া বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠান। কয়েকদিন কেটে গেলে পণ্যটি কুরিয়ারে পাঠানো হয়েছে কি না জানতে চান। প্রতিউত্তরে মেসেঞ্জারে কম্পানি কর্তৃক জানানো হয় পণ্যটি পাঠানো হয়েছে। কিন্তু ওই নারী পণ্যটি হাতে পাননি জানালে তাকে ব্লক করে দেওয়া হয়।

এসব ফেক আইডি দিয়ে বিভিন্ন গ্রুপে প্রচারণা চালিয়ে গ্রাহক আকৃষ্ট করা হয়

কালের কণ্ঠকে ভুক্তভোগী ওই নারী জানান, এরা ইনবক্সে অর্ডার নেয়। ইনবক্সে একটি বিকাশ নম্বর দেয়।

তাদের ফেসবুক পেইজে কোনো নম্বর নেই। তিনি বলেন, আমি টাকা পাঠানোর পর তাদের একবার নক করলে জানায় পণ্যটি কুরিয়ারে পাঠিয়েছে, কিন্তু পরে আবার নক করলে আমাকে ব্লক করে দেয়া হয়। আমার ধারণা এভাবে তারা ভিন্ন ভিন্ন মানুষের সঙ্গে আমার মতোই প্রতারণা করে আসছে।

Imported Products in Bangladesh নামের ওই প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পেইজ ঘেঁটে দেখা গেছে কোথাও তাঁদের ফোন নম্বর দেয়া নেই। পণ্যের ছবি নিচে আগ্রহীরা ক্রয় করার আগ্রহ দেখালে তাঁদের ইনবক্সে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। পুরো ফ্যানপেইজ জুড়ে পণ্যের ছবি দেয়া রয়েছে সঙ্গে মূল্য যুক্ত রয়েছে। ঠিক একইভাবে গাজীপুরের বাসিন্দা ওই নারী ইনবক্সে যোগাযোগ করে প্রতারিত হয়েছেন। নারয়ায়ণগঞ্জের এক নারী ৫ হাজার টাকার পণ্যের অর্ডার করে প্রতারিত হয়েছেন।

ভুক্তভোগীরা বিভিন্ন গ্রুপে জান্নাচ্ছে তাঁদের প্রতারণার খবর

এরকম আরো অনেকগুলো প্রতারণার ঘটনা ঘটেছে। আরিফুল হক নামের একটি আইডি থেকে ওই প্রতিষ্ঠানের নামে প্রতারণাও করছে। জানা গেছে ওই প্রতিষ্ঠানের নাম দেখিয়ে অনেকগুলো ফেইক আইডি থেকে বিভিন্ন গ্রুপে পণ্যের প্রচার করা হয়। অনেকেই আগ্রহী হয়ে ওঠে এবং বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠিয়ে ব্লক লিস্টে চলে যায়।

এই প্রতিবেদক মেসেঞ্জারে অর্ডার দিতে চাইলে মেসেঞ্জারে এই মেসেজটি পাঠানো হয় ‘ আমাদের কোনো পণ্য অর্ডার করার নিয়ম- ১। পণ্যের বিবরণ, ২। নাম, ৩। ঠিকানা, ৪। মোবাইল নাম্বার, ৫। বিকাশে পেমেন্টের ক্ষেত্রে ট্রানজেকশন আইডি বা সেন্ডার নাম্বার।   Bkash 01813820805, Delivery Time 1-3 days, Hotline 09639111144 আমাদের কোনো ক্যাশ অন ডেলিভারি সার্ভিস  নেই। ‘ খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, একই মেসেজ সব গ্রাহককেই পাঠানো হয়।

এই প্রতিবেদকের সঙ্গেও একই কৌশল অবলম্বন করে প্রতারক চক্রটি

প্রতিবেদক ক্রেতা সেজে ঠিকানা চাইলে তারা জানায় তাদের অফিস চট্টগ্রামে। প্রতিটি গ্রাহককেই তারা একই বিকাশ নম্বর পাঠায় এবং একই হটলাইন দেয়। ওইসব নম্বরে যোগাযোগ করে বন্ধ পাওয়া গেছে। ধারণা করা করা হচ্ছে নারীদের কৌশলে ফাঁদে ফেলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ওই প্রতারক চক্রটি। -কালের কণ্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*