Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সৌদিতে করোনায় ২০ দিনে আরও ৫৩ বাংলাদেশির মৃত্যু

সৌদিতে করোনায় ২০ দিনে আরও ৫৩ বাংলাদেশির মৃত্যু

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : মহামারি করোনাভাইরাসে প্রাণহানির সবচেয়ে বেশি আশঙ্কাজনক অবস্থায় দিন কাটাছেন সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা। প্রাণঘাতি করোনায় দেশটির মক্কা-মদিনা, জেদ্দা, দাম্মাম ও রাজধানী রিয়াদে গত ২১ দিনের ব্যবধানে অন্তত ৫৪ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্যে, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে সৌদি আরবে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩ হাজার ৭১৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ১২ হাজার ২৮৮ জনে। ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩৬ জনের। মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৮১৯। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও এক হাজার ৬১৫ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৭৭ হাজার ৯৫৪ জন।

বাংলাদেশি মৃতরা হলেন- ডা. আবদুর রহিম (৪৫), হোসেন চৌধুরী (৫৫), বেলাল উদ্দিন (৪৫), আবু তৈয়ব (৪৮), মোহাম্মদ ফারুক (৩৩), মোহাম্মদ আজিজ (৩৬), মুহাম্মদ মিন্টু মল্লিক (৪৩), জালাল মিয়া (৪০), মোহাম্মদ ইউনুচ (৪৩), কামাল উদ্দিন (৩৪), জাহাঙ্গীর আলম (৩৭), বেলায়াত হোসেন (৪২), ইউনুস ফকির (৪৯), মুহাম্মদ মুছা (৪৪), মোহাম্মাদ শামীম (৫২)।

এছাড়া রফিকুল ইসলাম (৪৬), মুহাম্মদ হারুন (৫৫), খলিলুর রহমান (৩৮), আনোয়ার হোসেন (৫২), মোহাম্মাদ রিওয়াজ (২৬), আমজাত হোসেন (৬৫), মোস্তাফা উদ্দিন (৩১), আলহাজ্ব ইসহাক জিরো (৪৯), মোহাম্মাদ দেলোয়ার (৪০), সাইফুল ইসলাম (৩০), বদিউল আলম (৩৩), তাজুল ইসলাম (৪১), মগির আহমদ (২৫), মোহাম্মদ নুরুল হক (৩৭), মোশেদুল আলী (৩৬), মোহাম্মদ আমিন (৪৫), মকবুল আহমদ (৪০), মোহাম্মদ আলী (৫০), মোহাম্মদ কবির (৫৩), মনির হোসেন (৪৩), মোহাম্মদ মিজান (২৬), মাসুদুর রহমান (৩৭), আইয়ুব আলী (৪৫) ও মনিরুল ইসলাম (৪২), মোহাম্মদ পারভেজ (৪১) ও মোজাম্মল ড্রাইবার (৪৮)।

জানা গেছে, গত তিন মাসে নিজ বাসা অথবা হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সৌদিতে ২৫৪ জন মারা গেলেও করোনার উপসর্গ ও হ্নদরোগে মারা গেছে অন্তত ২৮৩ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশটির বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রায় সাড়ে ১১ হাজার বাংলাদেশি।

দীর্ঘদিন লকডাউন ও কারফিউ শিথিল হওয়ার পর থেকে করোনা নতুন করে তাণ্ডব চালাচ্ছে সৌদিতে।মার্চ থেকে প্রায় তিন মাস ধরে ব্যবসা বাণিজ্য ও সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়ে সৌদির ১৩টি বড় শহরসহ দেশজুড়ে কারফিউ জারি করে দেশটির সরকার।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির বিষয়ে জনসাধারণের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা অবহেলা করাকে দোষারোপ করেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আল-আবদেল আলী। দেশের নাগরিক ও অভিবাসীদের সামাজিক দূরত্ব বাজয় রাখা এবং স্বাস্থ্যবিধি মানা ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা অনুসরণ করার জন্য তিনি আহ্বান জানান।

গত ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। ইতোমধ্যেই বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস। আক্রান্ত হয়েছেন ৭৩ লাখের বেশি মানুষ। প্রাণ হারিয়েছেন ৪ লাখ ১৪ হাজারের ও বেশি মানুষসুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৬ লাখ ৩৭ হাজার করোনা রোগী। জাগোনিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!