Home | ব্রেকিং নিউজ | লোহাগাড়ায় জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেনি ৮ শিক্ষার্থী

লোহাগাড়ায় জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেনি ৮ শিক্ষার্থী

image_printপ্রিন্ট করুন

254

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়ার বিবিবিলা দারুল কোরআন দাখিল মাদ্রাসার ৮ জন শিক্ষার্থী আজ ১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেনি। চরম্বা জামেউল উলুম ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আবুল কাশেম ও সহ-সুপার মাওলানা সামশুল আলম হেলালীর দায়িত্বহীনতায় এর অন্যতম কারণ বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু আসলাম। এ ব্যাপারে তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিশও দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

লোহাগাড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম ও বিবিবিলা দারুল কোরআন দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আবু তাহের সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এ মাদ্রাসাটি মাদ্রাসা বোর্ড কর্তৃক জেডিসি পরীক্ষা দেয়ার অনুমতি না থাকায় প্রতি বছরের ন্যায় ১০ জন শিক্ষার্থী জেডিসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের জন্য চরম্বা জামেউল উলুম মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষকে রেজিষ্ট্রিশেন ও ফরম পূরণের জন্য রশিদ মূলে টাকা জমা দেয়। কিন্তু মাদ্রাসার সুপার ও সহ-সুপারের দায়িত্ব অবেহলার কারণে ১০ জন শিক্ষার্থীর রেজিষ্ট্রিশন করলেও ২ জন ছাড়া বাকী ৮ জনের ফরম পূরণ হয়নি। ফলে তারা এবারের জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে গত মাসে মাওলানা আবু তাহের উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে লিখিতভাবে জানান। কিন্তু চরম্বা জামেউল উলুম ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার কিংবা সহ-সুপার কোন ব্যাবস্থা নেননি। ফলে এ শিক্ষার্থীদের জীবন হতে একটি বৎসর ঝরে গেল। এ ঘটনায় তাদের মাঝে হতাশা বিরাজ করছে। অভিভাবকরা আশংকা করছেন শিক্ষার্থী যে কোন মুহুর্তে মারাত্মক সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

অপরদিকে, মাদ্রাসা সুপার মাওলানা আবুল কাশেম ইউএনও বরাবরে কারণ দর্শানোর নোটিশে লিখিতভাবে জানিয়েছেন, এ জন্য তিনি দায়ী নন। সহ-সুপারই মূলতঃ দায়ী। অপরদিকে, সহ-সুপারের দাবী তিনি সুপারের নির্দেশ পালন করেছেন মাত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!