ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সীতাকুণ্ডে কোন্দলে যুবলীগ নেতা খুন

সীতাকুণ্ডে কোন্দলে যুবলীগ নেতা খুন

0

নিউজ ডেক্স : চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে এক যুবলীগ নেতাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছে আরো একজন। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ মনে করছে। অন্যদিকে উপজেলা যুবলীগ এ ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে হামলাকারীকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ড পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি দাউদ সম্রাট ও একই এলাকার বাসিন্দা শহীদুল ইসলাম প্রকাশ ডাকাত শহীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চরম শত্রুতা চলে আসছিলো। প্রায়ই তাদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটত। এসব ঘটনায় খুন-জখমও হয়েছে বেশ কয়েকজন। ফলে উভয়ের বিরুদ্ধেই মামলা-মোকদ্দমা আছে। এমনিভাবে আজ সোমবার বিকাল আনুমানিক ৪টায় সীতাকুণ্ড পৌরসদরের ৪নং ওয়ার্ডের অন্তর্গত ভোলাগিরি এলাকায় ঐ ওয়ার্ডের যুবলীগ সভাপতি দাউদ সম্রাট ও যুবলীগের সদস্য মো. সাজ্জাদকে  কুপিয়ে গুরুতর জখম করে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তার বন্ধুরা রক্তাক্ত অবস্থায় দু’জনকে উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে চমেকে রেফার করেন। পরে বিকেল ৫টার দিকে তাদেরকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সম্রাটকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে সাজ্জাদ চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

নিহত সম্রাট সীতাকুণ্ড পৌরসদরের মধ্যম মহাদেবপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মৃত আবুল হোসেনের পুত্র এবং আহত সাজ্জাদ পৌরসদরের নিজতালুক গ্রামের আলী রাজ্জাকের পুত্র। এদিকে এ ঘটনার পর এলাকায় চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যায় পুলিশসহ বিভিন্ন নেতাকর্মীরা। যেকোনো সময় সেখানে আরো বড় কোনো সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। ফলে বিকাল থেকেই ভয়ে পৌরসদরের সব দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়।

উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রবিউল হোসেন অভিযোগ করে বলেন, পৌর এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী শহীদুল ইসলাম প্রকাশ ডাকাত শহীদ বিকেল ৪টার দিকে পৌরসদরের ভোলাগিরি এলাকায় যুবলীগের ঐ ওয়ার্ড সভাপতি দাউদ সম্রাট ও যুবলীগ সদস্য সাজ্জাদ হোসেনকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে জখম করে।

তিনি বলেন, নির্বাচনের মাত্র একদিন পর ডাকাত শহীদ এ ঘটনা ঘটিয়ে এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এটি পরিকল্পিত বলেই ধারণা করছি আমরা। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর জহিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সীতাকুণ্ড থেকে দুই জনকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করা অবস্থায় চমেকে আনা হয়। এখানে আনার আগেই সম্রাট মারা যান বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন।

biman-ad

সীতাকুণ্ড থানার ওসি মো. দেলওয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দাউদ সম্রাটের সাথে শহীদের পূর্ব থেকেই শত্রুতা ছিল। ইতোপূর্বে শহীদের এক ভাই হত্যার ঘটনায় সম্রাটের বিরুদ্ধে মামলা আছে থানায়। শহীদের বিরুদ্ধেও থানায় অনেক মামলা আছে। প্রকৃত পক্ষে তারা দু’জনের বিরুদ্ধেই অনেক অভিযোগ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হবে। আমরা অবশ্যই হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!