Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সাতকানিয়া থানার ওসি রফিকুল হোসেনের মহানুভবতা

সাতকানিয়া থানার ওসি রফিকুল হোসেনের মহানুভবতা

474

নিউজ ডেক্স : ‘মানুষ মানুষের জন্য’ এটি একটি স্লোগান। এবার সেই মানুষের জন্যই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দেখে হাসপাতালে ছুটে গিয়ে এক শিশুকে নিজের সন্তানের মতোই বুকে জড়িয়ে ধরে আদর করলেন এবং শিশুটির জন্য রক্ত দিলেন।

২৯ আগস্ট মঙ্গলবার দুপুরে অণুচক্রিকা সংগঠনের এক সদস্যের ফেইসবুক ওয়ালে সাতকানিয়া পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের সুকুমার দাশের মেয়ে থ্যালেসেমিয়া রোগে আক্রান্ত মিনা দাশ (১০) এক শিশুর জন্য রক্তের প্রয়োজন এমন একটি পোস্ট দেখে তাৎক্ষনিক পার্শ্ববর্তী ডায়াবেটিকস হাসপাতালে ছুুটে যান সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রফিকুল হোসেন। রক্তের গ্রুপ মিলে যাওয়ায় ওসি শিশুটির জন্য স্বেচ্ছায় কয়েক ব্যাগ রক্ত দান করেন। মেয়েকে ওসি রক্ত দেয়া খুশি হলেন শিশুটি বাবা সুকুমার দাশ।

তিনি বলেন, আমি গরীব লোক। আমার মেয়েটি থ্যালেসেমিয়ায় আক্রান্ত হওয়ায় তাকে প্রতি মাসে রক্ত দিতে হয়। কয়েক মাস ধরে অণুচক্রিকা সংগঠনটি আমার মেয়েকে বিনা খরচে রক্ত দেয়ার জন্য কাজ করে আসছে। তাদের মাধ্যমে খবর পেয়ে ওসি সাহের হাসপাতালে এসে আমার মেয়েকে রক্ত দিলেন। ওসি এক শিশুকে রক্ত দেয়ার ছবি ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সবাই ওসিকে ধন্যবাদ জানান।

অণুচক্রিকা ফাউন্ডেশনের কর্মী মো. এনামুল হক বলেন, এক অসহায় পরিবারের এক শিশু থ্যালেসেমিয়ায় আক্রান্ত। শিশুটির বাবার পক্ষে তাকে প্রতিমাসে রক্ত দেয়া সম্ভব না খবরটি পেয়ে আমরা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের লোকজন ছুটে যায় মিনা দাশের বাড়িতে। গত কয়েক মাস ধরে সংগঠনের মাধ্যমে শিশুটির জন্য মানব সেবার কাজ করে যাচ্ছি।

আমাদের প্রচারের মাধ্যমে খবর পেয়ে ওসি রফিকুল হোসেন শিশুটির জন্য মানবতার কল্যাণে রক্ত দেয়ার আগ্রহ জানালে তাকে হাসপাতালে আসতে বলি। হাসপাতালে এসে ওসি শিশুটিকে নিজের সন্তানের মতোই জড়িয়ে ধরেন এবং রক্ত দেন। সাতকানিয়া থানার ওসি রফিকুল হোসেন বলেন, মানুষের সেবা করতে না পারলে আমার ভালো লাগে না। সবসময় চেষ্টা করি মানুষের কল্যাণে কাজ করতে। শিশুটিকে রক্ত দিয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*