Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | লোহাগাড়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় স্বামী-স্ত্রী আহত

লোহাগাড়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় স্বামী-স্ত্রী আহত

17580056_794391500718459_2029269157_n

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের লোহার দিঘীর দক্ষিণে আইডিয়াল স্কুল সংলগ্ন এলাকায় জায়গা জমির বিরোধের জের ধরে এক দম্পতিকে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করে হাত ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত দম্পতিরা হলেন নুরুল আমিন ও রেহেনা আক্তার। এব ্যাপারে গত ২৭ মার্চ সোমবার জনৈক আবদুল মান্নানসহ ৬জনকে আসামী করে চট্টগ্রাম চীফ জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন রেহেনা আক্তার।

biman-ad

এজাহার সূত্রে প্রকাশ, প্রতিবেশী আবদুল মান্নানের সাথে জায়গা জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। গত ১৯ মার্চ সন্ধ্যায় রেহেনা আক্তার কয়েকজন কাজের লোক নিয়ে বাড়ির সীমানা গেইট লাগাতে গেলে প্রতিপক্ষ অতর্কিতভাবে তাকে টানা হেঁচড়া করে ও উপর্যপুরি কিল ঘুষি লাতি মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। এসময় স্বামী নুরুল আমিন স্ত্রীকে রক্ষা করতে চেষ্টা করলে দূর্বৃত্তরা তাকেও লাঠি-সোটা ও লোহার রড দিয়ে মাথায় ও হাতে আঘাত করলে তার বাম হাত ভেঙ্গে যায়। এসময় রেহেনার দেবর নুরুল আবছার কাঞ্চন ঘটনাস্থলে এসে ভাই ভাবীকে রক্ষার চেষ্টা করলে প্রতিপক্ষ তাকেও গাছের শক্ত পাট্টা দিয়ে মারধর করে শরীরের বিভিন্ন অংশে রক্তাক্ত জখম করে এবং নির্মাণ সামগ্রী লুট করে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় আহতদের চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে আহত রেহেনা আক্তার জানান, প্রতিবেশি হোটেল ফোর সিজনের কেয়ার টেকার আব্দুল মান্নান আমাদের ভোগ দখলীয় জায়গায় আমরা নির্মাণ কাজ করতে গেলে অজ্ঞাতনামা দূর্বৃত্তদের নিয়ে কাজে বাঁধা দেয় এবং বেদড়ক পিটুনী দিয়ে আমাদের পরিবারের সদস্যদের মারাতœক জখম করে। এব্যাপারে কোর্টে মামলা দায়ের করায় তারা আরো বেশি ক্ষিপ্ত হয়ে ভারী অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে আমাদের বাড়ির সীমানায় অবৈধ অনুপ্রবেশ করে বাড়ির সম্মুখস্থ পুকুরে কাটা তারের বেড়া দিয়ে ঘিরে দখল করে রাখে। যার ফলে আমরা এখন অবরুদ্ধ অবস্থায় দিন যাপন করছি।

এ ব্যাপারে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নাছির উদ্দিন বলেন, কোর্টে মামলা হয়েছে, থানায় মামলা রেকর্ড হয়েছে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অপরদিকে, অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগ করতে না পারায় এ ব্যাপারে তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!