Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | মিতু হত্যা মামলা: ‘বাবুলকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে জড়ানো হচ্ছে’

মিতু হত্যা মামলা: ‘বাবুলকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে জড়ানো হচ্ছে’

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : মাহমুদা খানম মিতু হত্যার ঘটনায় নিজের করা মামলায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) দেওয়া চূড়ান্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে আদালতে নারাজি আবেদন করেছেন সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের আদালতে আবেদনটি করেন বাবুল আক্তারের আইনজীবী শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী।

নারাজি আবেদনে বলা হয়, সিনিয়র অফিসার থেকে মামলার তদন্তভার নিয়ে জুনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা দিয়ে মামলা তদন্ত করা বাবুল আক্তারের প্রতি অসম্মানজনক বটে। মূলত মহলবিশেষের কথা মোতাবেক সিনিয়র তদন্তকারী কর্মকর্তা কাজ না করায় জুনিয়রকে দিয়ে মনগড়া তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। বাবুল আক্তারকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে জড়ানোর অপচেষ্টা করা হচ্ছে।  

বাবুল আক্তারের আইনজীবী শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, স্বর্ণের চোরাকারবারি ও কালোবাজারিদের ধরেছেন, জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ করেছেন বাবুল আক্তার। আমরা মনে করি, একটি বিশেষ মহল এবং এই সিন্ডিকেট সবাই মিলে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। আদালত নারাজি আবেদন মঞ্জুর করেছেন। আগামী ২১ অক্টোবর মামলার বাদী বাবুল আক্তারের উপস্থিতিতে আবেদনের শুনানি হবে।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে নগরের পাঁচলাইশ থানার জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় প্রকাশ্যে গুলি চালিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয় মিতুকে। হত্যাকাণ্ডের পর নগরের পাঁচলাইশ থানায় অজ্ঞাত পরিচয়ের কয়েকজনকে আসামি করে একটি মামলা করা হয়, যার বাদী ছিলেন সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার নিজেই। গত ১২ মে মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেন বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে আরেকটি মামলা করেন। -বাংলানিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!