Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | বান্দরবানে জেএসএস-যৌথ বাহিনীর গোলাগুলি

বান্দরবানে জেএসএস-যৌথ বাহিনীর গোলাগুলি

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে পাহাড়ের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রুপ জেএসএস’র সঙ্গে যৌথ বাহিনীর গোলাগুলি হয়েছে। এসময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অফিসার সহ ২ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। যৌথ বাহিনীর গুলিতে এক অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী নিহতের খবরও পাওয়া গেছে। আজ বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, জেলার সীমান্তবর্তী বাইশারী-দোছড়ি সীমান্তের ছাগলখাইয়া চাকপাড়া পাহাড়ি এলাকায় নাইক্ষ্যংছড়ি বিজিবি ব্যাটালিয়নের কমান্ডার লে. কর্নেল শাহ আব্দুল আজিজের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী, বিজিবি যৌথ বাহিনীর ৮টি দল অভিযান চালায়।

এসময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের সাথে যৌথ বাহিনীর কয়েক দফা গোলাগুলি হয়। এতে গোলাগুলিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একজন অফিসার সহ ২ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে।আহতদের উদ্ধার করে হেলিকপ্টার যোগে চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম নেয়া হয়েছে। তাদের নাম তাৎক্ষণিক পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রুপের একজন সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছেন সেনাবাহিনীর ৬৯ রিজিয়নের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা।

এ ঘটনায় ৬৯ সেনা রিজিয়ন এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, সেনাবাহিনী, বিজিবির অভিযানে পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)-এর মূল দলের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর দুপুর বারোটা পর্যন্ত গোলাগুলি হয়। এতে সন্ত্রাসীদের ক’জন সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

সেনাবাহিনী-বিজিবি যৌথ বাহিনীর অভিযানের মুখে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়। ঘটনাস্থলে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে, পাহাড়ের অরণ্যে গোলাগুলির ঘটনাটি স্বীকার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) পরিচালক (অপারেশন্স) লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়জুর রহমান।

দোছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ হাবিব উল্লাহ বলেন, “গোলাগুলিতে আহত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উদ্ধার করে হেলিকপ্টারযোগে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।” আজাদী অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!