Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | বাংলাদেশী যুবককে মিয়ানমার বাহিনীর ধরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ

বাংলাদেশী যুবককে মিয়ানমার বাহিনীর ধরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : সীমান্তের চিংড়ি ঘের থেকে আব্দুর রহিম (৩৬) নামের যুবককে মিয়ানমারে ধরে নিয়ে গেছে। মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) এ ঘটনা ঘটিয়েছে এমন অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

ওই যুবক টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সাতঘরিয়া পাড়ার মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে। গত সোমবার (৩০ আগস্ট) দিবাগত রাত ১২টার দিকে হোয়াইক্যং সীমান্তের নাফনদীর ৫নং স্লুইসগেট এলাকার জনৈক মোস্তাকের মালিকানাধীন চিংড়ি ঘেরে এ ঘটনা ঘটে।

আজ বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা ও চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায় বিষয়টি নজরে আনেন হোয়াইক্যং ইউপি চেয়ারম্যান নূর আহমদ আনোয়ারী।

তিনি সভাকে জানান, মিয়ানমারের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর টহল সদস্যরা নাফনদী হয়ে বাংলাদেশের সীমানার টেকনাফের চিংড়ি ঘেরে কর্মরত যুবক আব্দুর রহিমকে ধরে নিয়ে গেছে। তাকে উদ্ধারে যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পারভেজ চৌধুরী জানান, বিষয়টি যেহেতু সীমান্ত সংশ্লিষ্ট তাই সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)কে মিয়ানমারে আটক উক্ত যুবককে বাংলাদেশে ফেরত নিয়ে আসার ব্যাপারে দ্বিপাক্ষিক যোগাযোগ করতে অনুরোধ জানানো হয় সভায়।

এদিকে, মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিজিপি) হাতে ধৃত দাবি করে তাকে উদ্ধার করে দেশে ফেরত আনার দাবি জানিয়ে উক্ত যুবকের ভাই দেলোয়ার হোছাইন আজ বুধবার বিজিবি টেকনাফ ২ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক বরাবরে লিখিত আবেদন করেছেন বলে জানান।

তিনি আরো জানান, এভাবে ধরে নিয়ে যাওয়ায় তিন দিন ধরে উৎকন্ঠায় রয়েছে গোটা পরিবার। আজাদী অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!