Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | পাহাড় কেটে তৈরি করা রাস্তা ধসের শংকায় বন্ধ

পাহাড় কেটে তৈরি করা রাস্তা ধসের শংকায় বন্ধ

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ) পাহাড় কেটে বানিয়েছে রাস্তা। আবার পাহাড় ধসের শংকায় সেই রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে তিন মাসের জন্য। ফৌজদারহাট-বায়েজিদ লিংক রোড নিয়ে সিডিএ’র এমন কাণ্ডে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

১৯৯৯ সালে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (একনেক) নির্বাহী কমিটির সভায় পাস হয় ফৌজদারহাট বায়েজিদ লিংক রোড প্রকল্প। বহু কাঠখড় পুড়িয়ে ২০১৬ সালের জুন মাসে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রথমে ১৭২ কোটি ৪৯ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হলেও সড়কটি চার লেনে উন্নীত করার সিদ্ধান্তে ব্যয় বেড়ে দাঁড়ায় ৩২০ কোটি টাকায়। এত টাকা ব্যয়ে নির্মিত রাস্তা পাহাড় ধসের ঝুঁকি এড়াতে বন্ধ করে দেওয়াকে প্রকৌশলগত ত্রুটি হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।
 
নগর পরিকল্পনাবিদ প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার বলেন, সিডিএ এই রাস্তাটি করতে বেশ কয়েকটি পাহাড় কেটেছে। পাহাড় ধসের শংকায় তা আবার বন্ধ করে দিয়েছে। প্রকল্পের শুরু থেকে যদি পরিকল্পিতভাবে পাহাড় কাটা হতো তাহলে এখন এসে নতুন করে রাস্তায় চলাচল বন্ধ করতে হতো না। সিডিএ’র প্রকৌশলগত ত্রুটির কারণে এক কাজ দ্বিতীয়বার করতে হচ্ছে। এতে সাধারণ জনগণের অর্থের অপচয় হচ্ছে।

রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ার বিষয়ে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস বলেন, এই প্রকল্পের মেয়াদ এখনও শেষ হয়নি। আগামি বছরের জুন পর্যন্ত সময় রয়েছে। নগরের যানজট এড়াতে সড়কটির একপাশ খুলে দেওয়া হয়েছিল। এই সড়কে দর্শনার্থীর সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে। যেহেতু এখন বর্ষা মৌসুম তাই পাহাড় ধসের শংকা রয়েছে। নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখেই রাস্তাটি সাময়িক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।
  
তিনি বলেন, এই সুযোগে আমাদের আরও কিছু অসমাপ্ত কাজ রয়েছে। তা দ্রুত সময়ের মধ্যে শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে। বর্ষা মৌসুম চলে গেলে পুনরায় রাস্তাটি খুলে দেওয়া হবে।  

এদিকে, সড়কটি হঠাৎ করে বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে পড়েছে বায়েজিদ, নাসিরাবাদ, রুবি গেইট এলাকার শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো। নগরের ভিতরে যানজট থাকায় বেশিরভাগ শিল্প প্রতিষ্ঠানের পণ্য পরিবহন করা হতো এই সড়ক দিয়ে। কিন্তু রাস্তা বন্ধ থাকায় পণ্য নিয়ে নগরের মধ্য দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে পরিবহনগুলোকে। বাংলানিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!