Home | ব্রেকিং নিউজ | চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু

image_printপ্রিন্ট করুন

cu-admission-20181027113257

নিউজ ডেক্স : কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের অন্তর্ভুক্ত বি ইউনিটের পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। প্রথমবারের মতো এই বছর অনিয়ম ঠেকাতে ও ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই সকল কেন্দ্র রাখা হয়েছে।

শনিবার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিট থেকে প্রথম শিফটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম শিফটে ২০০০০১ থেকে ২১৫৮৯৫ রোল নম্বরধারী শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নেয়। দুপুর সোয়া ২টা থেকে একই ইউনিটের ২১৫৮৯৬ থেকে ২৩১৭৯০ রোলের শিক্ষার্থীরা ২য় শিফটের পরীক্ষায় অংশ নেবে। এই ইউনিটে এক হাজার ৬০০টি আসনের বিপরীতে ৩১ হাজার ৭৯০টি আবেদন জমা পড়েছিল।

এদিকে ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় আনা হয়েছে পুরো ক্যাস্পাস। সার্বিক নিরাপত্তার লক্ষ্যে ৭শরও বেশি পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে৷ মাঠে সক্রিয় আছেন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরাও। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটলে পর্যাপ্ত পরিমাণ রেলপুলিশ ও রেল নিরাপত্তা বাহিনী নিয়োজিত করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যেকোনো ধরনের অনিয়ম ও জালিয়াতি প্রতিরোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ বছর চবিতে ভর্তি পরিক্ষার সকল ধরনের জালিয়াতি রোধে এন্টি প্রক্সি অ্যাপ দ্বারা পরীক্ষার কেন্দ্রগুলো নিয়ন্ত্রণ করা হবে। অ্যাপসটি প্রত্যেক পরিদর্শক নিজের মোবাইলে ডাউনলোড করে রাখবে। এবং পরিদর্শক পরীক্ষার্থীর অ্যাডমিট কার্ডের ওপরে থাকা (QR) কিউআর কোডের ওপর অ্যাপসটি অন করে মোবাইলের ক্যামেরা ধরলেই অটোমেটিক কিউআর কোডের মধ্যে থাকা একটি গোপন কোডকে শনাক্ত করে তাৎক্ষণিক চবির অনলাইন সার্ভারের সঙ্গে কানেক্ট হয়ে সার্ভারে থাকা ব্যক্তিকে ডিসপ্লেতে দেখাবে। কাজেই সার্ভারে থাকা পরীক্ষার্থী ছাড়া ভিন্ন কেউ পরীক্ষা দেয়ার কোনো সুযোগ থাকছে না।

তাছাড়া পরীক্ষার হলে সকল ধরনের ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস বহন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ভর্তি পরিক্ষার্থীদের মাঝে যেকোনো ধরনের শিট বিতরণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এদিকে ক্যাম্পাসে নিরাপত্তার স্বার্থে পরীক্ষা চলাকালীন কোনো মোটরবাইক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনগুলো ভর্তি পরীক্ষার্থীদের সহায়তা করলেও কোনো হেল্প ডেক্স বসাতেও নিষেধ করা হয়েছে।

ভর্তি পরীক্ষার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় শাটল ট্রেনের সূচিতেও পরিবর্তন এনেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। যানজট মুক্ত রাখতে সক্রিয় ট্রাফিক পুলিশও।

এদিকে সম্মিলিত ‘ডি’ ইউনিটে ২৮ অক্টোবর সকাল ৯টা ৪৫ থেকে ৫০০০০১ থেকে ৫২২২৮৪ রোল নম্বরের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা হবে। ওই দিন দুপুর সোয়া ২টায় একই ইউনিটের ৫২২২৮৫ থেকে ৫৪৪৫৬৮ রোলের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা হবে। ‘ডি’ ইউনিটে এক হাজার ১০৪ আসনের বিপরীতে ৪৪ হাজার ৫৬৮টি আবেদন জমা পড়েছে।

২৯ অক্টোবর সোমবার সকাল ৯টা ৪৫ থেকে ‘এ’ ইউনিটের অধীন ১০০০০১ থেকে ১২২২১৫ রোল নম্বরের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা হবে। ওইদিন দুপুর সোয়া ২টা একই ইউনিটের ১২২২১৬ থেকে ১৪৪৪৩১ রোলের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা হবে। ‘এ’ ইউনিটে এক হাজার ৪৭৬ আসনের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছিল ৪৪ হাজার ৪৩১টি।

৩০ অক্টোবর সোমবার সকাল ১০টা থেকে ‘সি’ ইউনিটের সকল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা হবে। ‘সি’ ইউনিটে ৭৭২ আসনের বিপরীতে ১১ হাজার ৪৩৯টি আবেদন জমা পড়েছে।

৩১ অক্টোবর সোমবার সকাল ৯টা ৪৫ থেকে ‘বি-১- উপ-ইউনিটের সকল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা হবে। ওই দিন বেলা আড়াইটা হতে ‘ডি-১’ উপ-ইউনিটের পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!