Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | কোটি টাকার প্রশ্ন, কে সেই সিনিয়র অফিসার?

কোটি টাকার প্রশ্ন, কে সেই সিনিয়র অফিসার?

image_printপ্রিন্ট করুন
এসআই আকবর

নিউজ ডেক্স : সিলেট নগরীর বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত রায়হানের মৃত্যুর ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভুঁইয়া ভারতীয় খাসিয়াদের হাত ঘুরে এখন পুলিশের খাঁচায়। তবে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ার আগে আকবরকে মোবাইলের ক্যামেরায় বন্দি করেন ভারতীয় খাসিয়ারা। তাতে আকবর জানান, তিনি এক সিনিয়র কর্মকর্তার আশ্বাসে পালিয়েছিলেন। 

তবে পিবিআই তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, পুলিশের সেই অফিসার সম্পর্কে আকবরকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।দীর্ঘদিন পালিয়ে থাকার পর খয়েরি রঙের ফুল হাতা শার্ট, উসকো খুশকো চুল আর গালভরা দাড়ি নিয়ে ক্যামেরার সামনে দেখা গেছে আকবরকে। ভাইরাল হওয়া দুটো ভিডিও ক্লিপে দেখা যায় সবুজ রঙের নাইলনের রশি দিয়ে আকবরের কোমর বেঁধে রাখা, হাতও বাঁধা। রায়হানের মৃত্যুর ঘটনায় বরখাস্ত হওয়া এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে নিজের পক্ষে কেঁদে কেঁদে সাফাই গাইতে দেখা যায় ভিডিওগুলোতে।

একটি ভিডিওতে আকবরকে পিছমোড়া করে বেঁধে রাখা দেখতে পাওয়া যায়। হাত পেছনে রেখে রশি বেঁধে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেও দেখা গেছে কয়েকজনকে। জিজ্ঞাসাবাদের জবাবে আকবর তখন বলেন, ‘আমাকে একজন সিনিয়র অফিসার বলেছেন, তুমি চলে যাও, দুই মাস পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ফিরে আসবা।’

এখন প্রশ্ন উঠেছে, কে সেই সিনিয়র অফিসার? বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িটি কোতোয়ালি থানার অধীন। আকবরকে অভয় দেওয়া সেই অফিসারটি কি এ থানার কেউ? এ থানায় তার মাথার উপরে রয়েছেন তিনজন। এরা হলেন- ইন্সপেক্টর (তদন্ত), ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), সহকারী কমিশনার (এসি)। নাকি এরা কেউই নন, আরও উপরের কেউ?

তদন্তে পুলিশ নিশ্চিত হতে পারবে সেই নাম। তারা কি জানাবে সেই অফিসারের নাম? সিলেটে এখন কোটি টাকার প্রশ্ন এটিই। বিডি প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!