ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | এমপি কমল নেতাকর্মীসহ কারাগারে!

এমপি কমল নেতাকর্মীসহ কারাগারে!

1503407736
নিউজ ডেক্স : কারাগারে কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল! তাঁর সাথে কারাগারে গেলেন, কক্সবাজার সদর ও রামু উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের অসংখ্য নেতাকর্মী। কারাবরণ করলো আরো হাজার হাজার মানুষ। তবে এরা কেউ কারাগারে যাওয়ার জন্য আসেননি। এসেছিলেন বঙ্গবন্ধুর ফাতেহা উপলক্ষে মেজবানে অংশ নিতে। আর মেজবানস্থলে যেতেই প্রথমে চোখে পড়ে বিশাল এ কারাগার। দৃশ্যটি প্রকাশ্যে হলেও প্রতিকী।
কক্সবাজারের রামুতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত্ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমলের নেতৃত্বে স্মরণকালের বৃহত্ মেজবান অনুষ্ঠিত হয়। মেজবানস্থলে নির্মিত প্রতিকী কারাগারে বিদেশে পালিয়ে থাকা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনার দাবিতে এভাবে স্বেচ্ছায় কারাবরণ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এজন্য নির্মিত কারাগারে প্রবেশ করে স্বেচ্ছায় কারাবরণ কর্মসূচিতে অংশ নেন, সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম চৌধুরী, রেজাউল করিম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মুসরাত জাহান মুন্নী, রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলমসহ মেজবানে আসা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও সর্বস্তরের মানুষ।
মঙ্গলবার দুপুরে রামু স্টেডিয়ামে মেজবান এবং শোক সমাবেশ চলাকালে এ প্রতিকী কারাবরণ কর্মসূচি দৃষ্টিকাড়ে সব মানুষের। কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা বলেন, বাঙালি জাতির মুক্তির দূত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতার হত্যাকারী অনেকের ফাঁসি হয়েছে। যারা এখন বিদেশে পালিয়ে বেড়াচ্ছে জাতি তাদের বিচার দেখার জন্য ব্যাকুল হয়ে আছে। যার ফলশ্রুতিতে আজ রামুতে প্রতিকী কারাগারে বন্দি হয়ে আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ও সর্বস্তুরের জনতার এ প্রতিবাদ বিশ্ববিবেককে নাড়া দেবে। তিনি বলেন, সাংসদ কমলের উদ্যোগে এ ব্যতিক্রমী কারাবন্দি প্রতিবাদ ও স্মরণকালের বৃহত্ মেজবান বঙ্গবন্ধুর আদর্শের নেতাকর্মীদের জন্য সাহস আর প্রেরণার উত্স হয়ে থাকবে।
সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেন, কানাডা, আমেরিকা, লিবিয়া ও পাকিস্থানে পালিয়ে বেড়ানো বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার না হলে বাঙ্গালী জাতি কলংকমুক্ত হবে না। তাই অবিলম্বে এসব খুনিদের দেশে ফিরিনে এনে বিচার নিশ্চিত করতে হবে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের মানুষের প্রাণের স্পন্দন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত্ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে প্রতিবছর তিনি বৃহত্ আকারে মেজবান আয়োজন করে আসছেন। তবে এবার এ আয়োজন আরো বৃহত্ আকারে করার পাশাপাশি বিদেশে পালিয়ে থাকা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনার দাবিতে প্রতিকী কারাগারে স্বেচ্ছায় কারাবরণ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। তিনি বলেন, যদি অবিলম্বে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচার নিশ্চিত করা না হয়, তাহলে কক্সবাজার-রামুর মতো সারাদেশের মানুষ এভাবে প্রতিবাদমূখর হয়ে উঠবে।
-ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*