Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | উখিয়ায় পাকহানাদার মুক্ত দিবস পালিত

উখিয়ায় পাকহানাদার মুক্ত দিবস পালিত

image_printপ্রিন্ট করুন
Muktizuddha-Pic-at-Ukhiya-2-copy
কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া : কক্সবাজারের উখিয়ায় পাক হানাদার মুক্ত দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উখিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) ছেনুয়ারা বেগম বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস জাতির কাছে মুক্তিযোদ্ধাদেরকেই তুলে ধরতে হবে। দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী সংগ্রামে ৩০লাখ শহীদ এবং ২ লাখ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে আজ আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ পেয়েছি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নেতৃত্বে বাংলা মানুষ দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীকে বিতাড়িত করে বাংলাদেশ বিজয় অর্জন করে।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে ক্যাপ্টেন (অব:) আব্দুস সোবহান বলেছেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পুরো বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও জাতির গর্বিত সন্তানরা সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ৯ ডিসেম্বর কক্সবাজারের উখিয়াকে পাক হানাদার মুক্ত করে। তিনি আরো বলেন, এক শ্রেণির স্বার্থান্বেষী মহল ইতিহাসকে বিকৃত করতে গিয়ে পাঠ্যপুস্তকে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস তুলে না ধরে নতুন প্রজন্মকে বিভ্রান্তির দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এ থেকে উত্তরোণের জন্য প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে স্বাধীনতা সংগ্রামের আসল চিত্র মানুষের কাছে তুলে ধরার আহবান জানান।
গতকাল শনিবার (৯ ডিসেম্বর) বিকেলে উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে উখিয়া পাকহানাদার মুক্ত দিবসের আলোচনায় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
মুক্তিযোদ্ধা আলী আকবর বাঙ্গালীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন যথাক্রমে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আবুল খায়ের, বীরমুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম চৌধুরী, সাংবাদিক গফুর মিয়া চৌধুরী। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন উখিয়া উপজেলা যুবলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ আমিন শাকিল, মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে জাফর আহমদ, দুদু মিয়া, মুফিজুর রহমান, জহির উদ্দিন কুতুবী, জাফর আলম, বাদল বড়–য়া, নাসির উদ্দিন চৌধুরী, আবু বক্কর ছিদ্দিক, সুবেদার সুলতান আহমদ। সঞ্চালনা করেন রাজাপালং ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল উদ্দিন সুজন। আলোচনা সভার শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ছেনুয়ারা বেগম ও মুক্তিযোদ্ধারা জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মুক্তিযোদ্ধা রাহমত উল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!