Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | আসন্ন ঈদুল ফিতরে রাস্তায় থাকবে বিআরটিসির ৯০০ বাস

আসন্ন ঈদুল ফিতরে রাস্তায় থাকবে বিআরটিসির ৯০০ বাস

BRTC-BUS20170524125737

নিউজ ডেক্স : আসন্ন ঈদুল ফিতরে ঘরমুখো যাত্রীদের সেবা দিতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের (বিআরটিসি) ৯০০ গাড়ি রাস্তায় থাকবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বুধবার রাজধানীর কমলাপুর বিআরটিসি বাস ডিপোতে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ তথ্য জানান।

এছাড়া আগামী ২২ জুন থেকে এসব বাস ‘ঈদ স্পেশাল সার্ভিস’ হিসেবে চালাচল শুরু করবে। পাশাপাশি ঈদে যানজটপ্রবণ এলাকায় আনসার সদস্য নিয়োগ করা হবে বলেও জানান তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিআরটিসির মোট ৯০০ গাড়ি ঘরমুখো যাত্রীদের যাতায়াতের জন্য নিয়োজিত থাকবে। এর মধ্যে ৪৬৬টি বাস জেলা ও উপজেলায় যাতায়াত করবে। ঈদের আগের দিন পর্যন্ত ৫০টি বাস মহাখালী, গাবতলী, যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে থেকে যাত্রীসেবা প্রদানের জন্য স্টানবাই থাকবে।

তিনি আরও বলেন, এবার ঈদের সাতদিন আগে থেকে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে এবং আগামী ২২ জুন থেকে ঈদ স্পেশাল সার্ভিসে এসব বাস চলাচল শুরু করবে। এ সার্ভিস ঈদ পরবর্তী তিনদিন পর্যন্ত বহাল রাখা হবে।

এর পাশাপাশি বিআরটিসির ৩০০ বাসের রানিং মেরামত যথাযথভাবে সম্পন্ন করে ঈদ স্পেশাল সার্ভিসে দূরপাল্লার রুটে চলাচলের উপযোগী করা হচ্ছে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের কাছ থেকে সরকারি ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা যাবে না। এবার এটা বাস্তবায়নে প্রত্যেক কাউন্টারে অনুমোদিত ভাড়ার তালিকা দৃশ্যমানভাবে সাঁটানো হবে। বাস্তবায়নের ব্যাপারেও ম্যানেজারদের কঠোর নির্দেশ দেয়া রয়েছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, অনেক সময় দেখা যায় কাউন্টারের গাড়ি ঠিকমতোই ভাড়া নিচ্ছে। আবার কাউন্টার থেকে দূরে গিয়ে আরেক রকম ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এটা আমার চোখেও পড়েছে। কাজেই এ প্রাক্টিস যদি এবার কোথাও ঘটে তাহলে শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে। ঈদে স্পেশান সার্ভিসের বাসগুলো যথাযথভাবে যাচ্ছে কিনা- এছাড়া যাত্রীদের সমস্যা চিহ্নিত করার জন্য বিআরটিসির প্রধান কার্যালয়ে কন্টোল রুম খোলা হবে।

ঈদে কার কী দায়িত্ব তা ইতোমধ্যে সার্কুলার জারি করা হয়েছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ঈদ প্রস্তুতির জন্য পুলিশের যা করণীয়, সিএনজি স্টেশনের যা করণীয়, দুই সিটি কর্পোরেশনসহ হাইওয়ে পুলিশ এবং বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসনে ইতোমধ্যে সার্কুলার পাঠাতে শুরু করেছি।

বিআরটিসির শ্রমিক-কর্মচারীদের বকেয়া বেতন-ভাতা ও গ্রাচ্যুইটির চেক বিতরণ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*