ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | কারাগারে থেকে নির্বাচন করছেন ধানের শীষের ১৫ প্রার্থী

কারাগারে থেকে নির্বাচন করছেন ধানের শীষের ১৫ প্রার্থী

225552Ritpic

নিউজ ডেক্স : নাশকতার মামলায় যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) আসনে বিএনপির প্রার্থী জামায়াত নেতা আবু সাঈদ মোহাম্মদ শাহাদৎ হোসেনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে গত ২০ ডিসেম্বর। ঝিকরগাছা উপজেলার পুরন্দরপুর গ্রামের বাড়ি থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুরনো একটি মামলায় আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর মাত্র দুই দিন বাকি। এখনো তিনি কারাগারে।

এই প্রার্থী ছাড়াও ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা আরো ১৪ জন কারাগারে রয়েছেন। তাঁরা হলেন ঠাকুরগাঁও-২ আসনে মাওলানা আব্দুল হামিদ, রাজশাহী-৬ আসনে আবু সাঈদ চাঁদ, মাগুরা-১ আসনে মনোয়ার হোসেন, খুলনা-৬ আসনে আবুল কালাম আজাদ, সাতক্ষীরা-২ আসনে মুহাদ্দিস আবদুল খালেক, সাতক্ষীরা-৪ আসনে গাজী নজরুল ইসলাম, টাঙ্গাইল-২ আসনে সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, গাজীপুর-৫ আসনে এ কে এম ফজলুল হক মিলন, নরসিংদী-১ আসনে খায়রুল কবীর খোকন, গোপালগঞ্জ-৩ আসনে এস এম জিলানী, কুমিল্লা-১০ আসনে মনিরুল হক চৌধুরী, চট্টগ্রাম-৯ আসনে ডা. শাহাদাত চৌধুরী, চট্টগ্রাম-১৫ আসনে আ ন ম শামসুল ইসলাম, কুষ্টিয়া-১ আসনে রেজা আহমেদ বাচ্চু।

কুষ্টিয়া-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী রেজা আহমেদ বাচ্চু গত ১৯ ডিসেম্বর কুষ্টিয়ার একটি আদালতে আত্মসমর্পণ করলে জামিন নামঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। তিনি এ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও দৌলতপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি।

নরসিংদী-১ আসনের বিএনপি প্রার্থী খায়রুল কবির খোকনও একটি বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় আত্মসমর্পণ করার পর তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। মাগুরা-১ আসনের প্রার্থী মনোয়ার হোসেনকেও একটি মামলায় আত্মসমর্পণ করার পর কারাগারে পাঠানো হয় গত ২৯ নভেম্বর।

গাজীপুর-৫ আসনে বিএনপি প্রার্থী ফজলুল হক মিলনকে গত ১৩ ডিসেম্বর গ্রেপ্তার করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গত ১৬ ডিসেম্বর সাতক্ষীরা-৪ আসনের প্রার্থী জামায়াত নেতা গাজী নজরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তিনি বিএনপির হয়ে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। খুলনা-৬ আসনে বিএনপি প্রার্থী আবুল কালাম আজাদকে গত ২৭ অক্টোবর গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তাঁকে বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। তিনিও জামায়াত নেতা। বিএনপির হয়ে তিনি নির্বাচন করছেন।

অন্য প্রার্থীদের বিভিন্ন সময়ে গ্রেপ্তার করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এঁদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে নাশকতার বিভিন্ন মামলা রয়েছে। একটি মামলায় গ্রেপ্তারের পর তাঁদের পুরনো মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হচ্ছে।

biman-ad

এসব আসনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়া এই প্রার্থীরা প্রচারণায় পিছিয়ে আছেন বলে স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়। অবশ্য স্থানীয় নেতাকর্মীরা তাঁদের পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে সম্প্রতি এই তালিকা প্রকাশ করে তাঁদের মুক্তির দাবি জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!