Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সৌদিতে ১৩৭ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা চায় বাংলাদেশ

সৌদিতে ১৩৭ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা চায় বাংলাদেশ

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : বাংলাদেশের ১৩৭টি পণ্য সৌদি বাজারে শুল্কমুক্ত প্রবেশের সুবিধা প্রদানে সেদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী আল কাসাবিকে অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

সৌদি আরব সফররত সালমান এফ রহমান ও উচ্চ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তারা ড. মাজিদ বিন আবদুল্লাহ আল কাসাবির সঙ্গে এক ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে এ অনুরোধ জানান। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস এ তথ্য জানিয়েছে। বাংলানিউজ

বৈঠকে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব ও দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে সৌদি সরকার অত্যন্ত গুরুত্ব দেয়। এ সময় সালমান এফ রহমান সৌদি বাদশাহ ও যুবরাজের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুভেচ্ছা বার্তা পৌঁছে দেন।

তিনি বাংলাদেশের রূপকল্প ২০৪১ ও সৌদি রূপকল্প ২০৩০ বাস্তবায়নে আগামী দিনে দু’দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন লাভজনক খাতে সৌদি বিনিয়োগের ওপর জোর দেন।

বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে তৈরি পোশাক, চামড়াজাত ও প্লাস্টিক পণ্য, হিমায়িত মাছ ও ওষুধ আমদানি করা হয় উল্লেখ করে সালমান এফ রহমান বলেন, সৌদি আরব চাইলে বাংলাদেশ হালাল মাংস রপ্তানির জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবে। বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন পণ্য আমদানির মাধ্যমে দু’দেশের বাণিজ্য অসমতা দূর করা যেতে পারে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এ সময় তিনি বাংলাদেশের ১৩৭টি পণ্য সৌদি বাজারে প্রবেশের জন্য শুল্কমুক্ত সুবিধা প্রদানের বিষয়ে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান। বর্তমানে সৌদি আরব ও বাংলাদেশের মধ্যে বছরে ১.৩ বিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য হয়ে থাকে।

সালমান এফ রহমান ২০১৯ সালে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি উচ্চপর্যায়ের সরকারি ও বেসরকারি প্রতিনিধি দলের বাংলাদেশ সফরের সময় দু’দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির বিষয়ে স্বাক্ষরিত বিভিন্ন সমঝোতা স্মারক পর্যালোচনা করে কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার অনুরোধ জানান।

এ সময় তিনি ড. মাজিদ বিন আবদুল্লাহ আল কাসাবিকে জানান, তার দেশ চাইলে বাংলাদেশ সৌদি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠা করে বিশেষ সুবিধা দিতে প্রস্তুত রয়েছে।

দু’দেশের পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) বিষয়ে ২০১৮ সালে প্রস্তাবিত সমঝোতা স্মারকটি দ্রুত স্বাক্ষরের বিষয়ে সালমান এফ রহমান সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রীর সহযোগিতা চাইলে তিনি দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

সালমান এফ রহমান বলেন, এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হলে, বাংলাদেশের সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পে সৌদি কোম্পানির সরাসরি বিনিয়োগের দ্বার উন্মুক্ত হবে। তিনি সৌদি পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (পিআইএফ) আওতায় বাংলাদেশের বিভিন্ন মেগা প্রকল্পে বিনিয়োগের বিষয়ে অনুরোধ জানালে সৌদি মন্ত্রী ইতিবাচক মতামত ব্যক্ত করেন।

এ তহবিলের আওতায় তিনি বাংলাদেশে ঢাকা থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ ও কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিনিয়োগের আহ্বান জানান। সালমান এফ রহমান সৌদি সরকারের গৃহীত ‘অ্যান্টি কনকেলমেন্ট ল’ উল্লেখ করে বাংলাদেশি যেসব অভিবাসী সেখানে ব্যবসা করছেন তাদের সহায়তার জন্য সৌদি মন্ত্রীকে অনুরোধ করেন।

এ বিষয়ে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তার দেশে বিদেশিদের বৈধভাবে ব্যবসা করার বিষয়ে সরকার সুযোগ দিয়েছে। এর প্রেক্ষিতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিবন্ধনের মাধ্যমে বৈধভাবে সৌদি আরবে ব্যবসা করার সুযোগ পেয়েছেন। সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে বাংলাদেশিদের এ বিষয়ে সব ধরনের সহায়তা করা হবে।

এছাড়া সালমান এফ রহমান ড. মাজিদ বিন আবদুল্লাহকে প্রতিনিধি দল নিয়ে সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালে, তিনি তা গ্রহণ করেন। রিয়াদের বাংলাদেশ দূতাবাসে অনুষ্ঠিত এ ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে সেখানে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন ও বাংলাদেশ সরকারি- বেসরকারি অংশিদারীত্ব কর্তৃপক্ষের সিইও সুলতানা আফরোজসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!