ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সুপার মুন দেখা যাবে আজ

সুপার মুন দেখা যাবে আজ

super-moon20150927132358

রাতের আঁধারে চাঁদ! সবার কাছেই এই দৃশ্য সুন্দর। চোখ মেলে দেখতেও মানুষের উৎসাহ ও আয়োজনের শেষ নেই। চাঁদের আকার যদি স্বাভাবিকের চেয়ে বড় হয় একইসঙ্গে যদি নেমে আসে পৃথিবীর কাছাকাছি তাহলে সেকথা একবারেই আলাদামাত্রা যোগ করে সৌন্দর্য্যকে উপভোগ করতে।

মর্ত্যের মানুষের কাছে কল্পলোকের চাঁদ আরো স্পষ্ট হয়ে ধরা দেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে! আজ রাতেই দেখা মিলবে এ সুযোগের। দেখা মিলবে সুপার মুন বা অতিকায় চাঁদের। রং হবে রক্তলাল।

চাঁদ যখন তার স্বাভাবিক অক্ষ থেকে কিছুটা সরে এসে পৃথিবীর কাছাকাছি অবস্থান করে তখন আকাশে সুপারমুন দেখা যায়। এ সময় চাঁদ স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি উজ্জ্বল ও বড় দেখায়। তবে চাঁদের এ আকার খুব স্বল্প সময় স্থায়ী হয়।

চন্দ্রগ্রহণের সময় পৃথিবীর ছায়া গিয়ে পড়ে চাঁদের উপর। পৃথিবীর বায়ূমন্ডল ভেদ করে সূর্য্যেরকিরণ মহাশূন্যে গিয়ে পৌঁছে। আর এই কিরণের কারণে চন্দ্রগ্রহণের সময় চাঁদ লাল, বাদামি বা কালো রং ধারণ করে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এবার চন্দ্রগ্রহণের সময় চাঁদের রং হতে পারে রক্তলাল।

এদিন, চাঁদ পৃথিবী থেকে প্রায়  দুই লাখ ২৬ হাজার মাইল দূরে অবস্থান করবে, স্বাভাবিক আকারের চেয়ে ১৪ ভাগ বড় দেখা যাবে এবং স্বাভাবিকের তুলনায় ৩০ ভাগ বেশি আলোকিত হবে বলে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন।

উত্তর থেকে দক্ষিণ আমেরিকা, ইউরোপ, আফ্রিকা, পশ্চিম এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরের পূর্ব প্রান্ত থেকে ‘রক্তাক্ত চাঁদের’ দেখা মিলবে। মার্কিন সময় রোববার রাত ৮টা ১১মিনিট থেকে শুরু হবে চন্দ্রগ্রহণ। এর ঠিক দুই ঘণ্টা পরে পূর্ণগ্রহণ হওয়ার কথা রয়েছে। আর এই দৃশ্য স্থায়ি থাকবে ১২ মিনিট।

এর আগে চন্দ্রগ্রহণ দেখা গিয়েছিল ১৯১০, ১৯২৮, ১৯৪৬, ১৯৬৪ এবং সর্বশেষ ১৯৮২ সালে। এছাড়া পরবর্তী সুপারমুন দেখার জন্য ২০৩৩ সাল পর্যন্ত বিশ্ববাসীকে অপেক্ষা করতে হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*