Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | সাতকানিয়ায় আগুনে পুড়ে গেল ১০ বসতঘর

সাতকানিয়ায় আগুনে পুড়ে গেল ১০ বসতঘর

fire-pic--20171101210828

নিউজ ডেক্স : সাতকানিয়ায় চুরি করতে এসে বাড়ির লোকজনের জাগরণ দেখে ঘরের দরজার বাহিরে হুক লাগিয়ে আগুন ধরিয়ে দিল চোরের দল। এতে আগুনে পুড়ে গেল সংখ্যালঘু পরিবারের ১০ বসত বাড়ি। গত শুক্রবার ভোরে উপজেলার  দক্ষিণ কালিয়াইশের জলদাশ পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয় সাংসদ নজরুল ইসলাম চৌধুরী অগ্নিকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন এবং তাদের প্রতি পরিবারকে ৫ হাজার টাকা দেয়ার প্রতিশ্রæতি দেন সাংসদ।

অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত গুরা জলদাশ জানান, কয়েক মাস আগে চোরের দল সিংগাদ দিয়ে আমার বাড়িতে চুরি করেছিল। ওই সময় বাড়ির একটি মোবাইল ফোন নিয়ে যায় তারা (চোরের) দল। পরে এলাকার মাদক সেবি চোররা নিয়ে যাওয়া ফোন থেকে বাড়ির নাম্বার পেয়ে আমার মেয়েকে কল করে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না ফেলে প্রাণে মারার হুমকি দেয়। গত শুক্রবার রাতে যোগেস জলদাশের বাড়িতে সিংধ দিয়ে চুরি করার চেষ্টা করেন। ঘরের লোকজনের জাগরণ দেখে এলাকার মাদক সেবি চোরের দল পরিকল্পিত ভাবে বাবু জলদাশ, রতন জলদাশ, নুনু জলদাশ, কানু জলদাশ, হারাধন জলদাশ, রঞ্জিত জলদাশ, সোন্দর জলদাশ, হরি জলদাশ, সোনা জলদাশসহ আমার ঘরের বাহিরের দরজায় হুক লাগিয়ে এক সাথে সব বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। আমাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে দরজা খুলে সবাইকে উদ্ধার করে। তবে ফায়ার সার্ভিস আসার আগে আমাদের ঘরগুলি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে আমার ঘরে থাকা নগদ ৮১ হাজার টাকা, ৫ভরি স্বর্ণসহ মূল্যবান জিনিসপত্র পুড়ে যায়। কালিয়াইশ ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান নবী হোসেন বলেন, চুরি করতে না পেরে চোরের দল তাদের ঘরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। ওই এলাকায় মাদক সেবিদের উৎপাত বেশি বেড়ে গেছে। তারা মাদকের টাকা জোগাড়ের জন্য কয়েক জন একিত্র হয়ে বেশ কিছুদিন ধরে এলাকায় নানা অপরাধ করে যাচ্ছে। সাতকানিয়া

ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. ইদ্রিচ বলেন, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত পৌঁছে আগুন নিয়ন্তণের চেষ্টা করি। দেখে মনে হয়েছে এক সাথে কেউ সব ঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। এটি পরিকল্পিত ভাবে করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*